বড় সাফল্য বর্ধমান পুলিশের! দুদিনের মধ্যে রসিকপুর কাণ্ডে গ্রেপ্তার ১

বড় সাফল্য বর্ধমান পুলিশের! দুদিনের মধ্যে রসিকপুর কাণ্ডে গ্রেপ্তার ১
বড় সাফল্য বর্ধমান পুলিশের! দুদিনের মধ্যে রসিকপুর কাণ্ডে গ্রেপ্তার ১

৪৮ঘণ্টার মধ্যে বড়সড় সাফল্য পেলো বর্ধমান পুলিশ। গ্রেফতার করা হলো রশিকপুর বিস্ফোরণকাণ্ডে এক অভিযুক্তকে। বুধবার রাতে অভিযান চালিয়ে তার বাড়ি থেকে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এটা সারারাত পুলিশি জেরা করা হয় তাঁকে। বৃহস্পতিবার তাকে বর্ধমান আদালতে পেশ করা হলে বিচারক তিনদিন পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেয়।

পুলিশ সূত্রে খবর, ধৃতের নাম শেখ আউলিয়া। বাড়ি রসিকপুরেরই মসজিদতলায়। এদিকে স্থানীয় সূত্রে খবর এর আগেও পুলিশের খাতায় নাম উঠেছে আউলিয়ার। পুলিশ সূত্রের খবর পুলিশি জেরায় স্বীকার করেছে এর আগেও রশিকপুর এলাকায় বোমা সরবরাহ করেছে। তবে এই ঘটনায় তার যোগদান রয়েছে কিনা তা নিয়ে এখনো দ্বন্দ্বে রয়েছে পুলিশ।

প্রসঙ্গত, সোমবার পাঁচ বছরের দুই শিশু শেখ আফরোজ এবং শেখ ইব্রাহিম খেলছিল। ঠিক তখনই বোমাকে বল ভেবে খেলতে যায় তারা। এর পরেই ঘটে বিপত্তি। ঘটনাস্থলে বিস্ফোরণে মৃত্যু হয় আফরোজ এর। বর্ধমান মেডিকেল কলেজে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভর্তি রয়েছে ইব্রাহিম।

এই ঘটনার পরেই নির্বাচন কমিশন এবং শিশু সুরক্ষা কমিশন রিপোর্ট তলব করে জেলা প্রশাসনের কাছে। ঘটনাস্থলে যায় ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ দল। সেখান থেকে নমুনা সংগ্রহ করেন তারা। এমনকি নির্বাচনী আধিকারিক রা পুরো ঘটনা খতিয়ে দেখতে। এরপরেই ৪৮ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই বুধবার রাতে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত আউলিয়াকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এদিন আদালতে তাকে সাত দিনের পুলিশি হেফাজতে নেওয়ার আবেদন করলে বিচারক তিন দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.