জমে উঠেছে আইপিএল! ক্রোড়পতি লিগের ১০টি চমকে দেওয়ার মতো ঘটনা জানেন কি?

জমে উঠেছে আইপিএল! ক্রোড়পতি লিগের ১০টি চমকে দেওয়ার মতো ঘটনা জানেন কি?
জমে উঠেছে আইপিএল! ক্রোড়পতি লিগের ১০টি চমকে দেওয়ার মতো ঘটনা জানেন কি?

দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে আইপিএলের জনপ্রিয়তা। সেই ২০০৮ থেকে শুরু, তারপর বছর বছর ধরে এই ক্রোড়পতি লিগ জুড়ে গড়ে উঠছে একাধিক চমকে দেওয়া রেকর্ড। আর রেকর্ডধারীদের তালিকাও কম নয়৷ সেই তালিকায় সবার প্রথম এবং সবচেয়ে উজ্জ্বল নাম ক্রিস্টোফার হেনরি গেইল ওরফে ক্রিস গেইল। এছাড়াও রয়েছেন বিরাট কোহলি, এবি ডি’ভিলিয়ার্সের মতো নামী দামী তারকাও৷

এবার একনজরে চোখ বুলিয়ে নেওয়া যাক আইপিএলের চমক লাগানো ১০টি রেকর্ডের দিকে। যেগুলি এখনও পর্যন্ত অক্ষত।

১) সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রান
২০১৩ সালের ২৩ এপ্রিল সাহারা পুনে ওয়ারিয়ার্সের বিরুদ্ধে মাত্র ৬৬ বলে অপরাজিত ১৭৫ রান করেছিলেন ‘ইউনিভার্স বস’ গেইল। ১৩টি চার ও ১৭টি ছক্কা হাঁকিয়ে ২৬৫.১৫ স্ট্রাইক রেটে এই রান করেন তিনি। আইপিএল-এর ইতিহাসে এটাই এখনও পর্যন্ত সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রান।

২) সর্বোচ্চ দলীয় রান
পুনের বিরুদ্ধে যে ম্যাচে গেইলের ১৭৫ রান করেছিলেন, সেই ম্যাচে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট ২৬৩ রান তোলে গেইলের তৎকালীন আইপিএল দল আরসিবি। আইপিএলে এটাই এখনও পর্যন্ত সর্বোচ্চ দলীয় রান। সেই ম্যাচে পুনে ৯ উইকেটে ১৩৩ রানে আটকে যায়। ১৩০ রানে ম্যাচ জিতে যায় আরসিবি।

৩) দ্রুততম শতরান
ওই ম্যাচে মাত্র ৩০ বলে শতরান পূর্ণ করেছিলেন ক্রিস গেইল। তাঁর আগে এত কম বলে কোনও ধরনের ক্রিকেটেই কেউ শতরান করতে পারেননি। সেই রেকর্ড এখনও অক্ষত।

৪) এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি ছয়
পুনের বিরুদ্ধে ওই ম্যাচেই একা ১৭টি ছয় মারেন গেইল। সেই রেকর্ডও আজ পর্যন্ত কেউ ভাঙতে পারেননি।

৫) এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি চার
এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি চার মারার নজির রয়েছে এবি ডি’ভিলিয়ার্স ও পল ভালথাটির। ১৯টি চার মারার রেকর্ড রয়েছে দু’জনের। ২০১৫ সালে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে ৫৯ বলে ১৩৩ রান করেছিলেন এবিডি। সেই ম্যাচেই এই রেকর্ড গড়েন তিনি। অন্যদিকে ২০১১ সালে চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে একটি ম্যাচে ওউ সংখ্যক চার মারেন ভলথাটি। ওই ম্যাচে ৬৩ বলে ১২০ রান করেছিলেন তিনি।

৬) এক মরশুমে সবচেয়ে বেশি রান
২০১৬ সালের আইপিএল-এ ১৬টি ইনিংসে ৯৭৩ রান করেছিলেন বিরাট কোহলি। চারটি শতরান ও ৭টি অর্ধশতরানও ছিল এর মধ্যে। এক মরশুমে এত রানের গণ্ডী এখনও পর্যন্ত কোনও ব্যাটারই টপকাতে পারেননি।

৭) এক মরশুমে সবচেয়ে বেশি শতরান
২০১৬ আইপিএল-এই মোট ৪টি শতরান করেছিলেন কোহলি। এক মরসুমে এতগুলি শতরানের রেকর্ডও আর কোনও ক্রিকেটারের নেই।

৮) সর্বোচ্চ পার্টনারশিপ
আইপিএল-এ সর্বোচ্চ পার্টনারশিপের রেকর্ড রয়েছে এবি ডিভিলিয়ার্স ও বিরাট কোহলির। ২০১৬ সালে গুজরাত লায়ন্সের বিরুদ্ধে ২২৯ রানের পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন দুজনে। ওই ম্যাচে ৫৫ বলে ১০৯ রান করেন কোহলি। এবিডি ৫২ বলে ১২৯ রান করে অপরাজিত থাকেন। ম্যাচটিতে ৩ উইকেটে ২৪৮ রান তুলে ১৪৪ রানে জিতে যায় আরসিবি।

৯) সেরা বোলিং
২০১৯ সালে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের বিরুদ্ধে সেরা বোলিংয়ের রেকর্ড গড়েন আলজারী জোসেফ। ওই ম্যাচে আগুনে পেস বোলিং করে ৩.৪ ওভারে মাত্র ১২ রান দিয়ে ৬ উইকেট নেন এই ডানহাতি ক্যারিবিয়ান পেসার। তাঁর দাপুটে বোলিংয়ে মাত্র ৯৬ রানে অলআউট হয়ে যান হায়দ্রাবাদ।
জোসেফের এর আগে এই রেকর্ড ছিল পাকিস্তানের সোহেল তনভীরের নামে। ২০০৮ সালে চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে চার ওভারে ১৪ রানে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন রাজস্থান রয়্যালসের এই বোলার।

১০) এক মরসুমে সেরা বোলিং
এক মরসুমে সর্বোচ্চ উইকেট নেওয়ার রেকর্ড রয়েছে ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার ডোয়েন ব্র্যাভোর দখলে। চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে ২০১৩ মরশুমে ১৮ ম্যাচ খেলে সর্বোচ্চ ৩২টি উইকেট নিয়েছিলেন ডিজে ব্র‍্যাভো। তাঁর সেই রেকর্ড এখনও অক্ষত রয়েছে।