মর্মান্তিক! নাসিকের হাসপাতালে অক্সিজেন লিক হয়ে ভয়াবহ পরিণতি, ২২ করোনা রোগীর মৃত্যু!

মর্মান্তিক! নাসিকের হাসপাতালে অক্সিজেন লিক হয়ে ভয়াবহ পরিণতি, ২২ করোনা রোগীর মৃত্যু!
মর্মান্তিক! নাসিকের হাসপাতালে অক্সিজেন লিক হয়ে ভয়াবহ পরিণতি, ২২ করোনা রোগীর মৃত্যু!

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ দেশব্যাপী ভয়াবহ আকার নিয়েছে মারণ করোনা। প্রতিদিন ঝড়ের গতিতে বাড়ছে সংক্রমণ। সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। এই পরিস্থিতিতে বেশ কিছু রাজ্যে হাসপাতালে বেডের সমস্যা দেখা দিয়েছে। বেড খালি না থাকার জন্য এক একটা বেডে দুই থেকে তিনজনকে রাখা হচ্ছে। সঙ্গে দেখা দিয়েছে অক্সিজেনের অভাবও।

করোনায় সবথেকে খারাপ অবস্থা মহারাষ্ট্রে। দেশের মধ্যে এই রাজ্যেই সবথেকে খারাপ পরিস্থিতি করোনার কারণে। হাসপাতালে বেডের পাশাপাশি অক্সিজেনের অভাবও দেখা দিয়েছে। এই অবস্থা সামাল দিয়ে উঠতে না উঠতেই, আরও এক ভয়ঙ্কর বিপত্তি ঘটে গেল মহারাষ্ট্রের নাসিকে। যার জেরে কিছু সময়ের মধ্যেই পরপর ২২ করোনা রোগীর মৃত্যু হল।

করোনা বিধ্বস্ত মহারাষ্ট্রের নাসিকের জাকির হোসেন হাসপাতালে অক্সিজেন লিক হয়ে বিপর্যয় ঘটে। এর ফলেই করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি থাকা কমপক্ষে ২২ করোনা রোগীর মৃত্যুর খবর জানিয়েছেন সেখানকার জেলাশাসক। পাশাপাশি এই ঘটনায় গুরুতর অসুস্থ অনেকেই। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ৩১ জন রোগীকে অন্যত্র স্থানান্তর করা হয়েছে।

জানা গিয়েছে, ওই হাসপাতালে মোট ১৭১ জন রোগী ভর্তি ছিলেন। মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ টোপে জানিয়েছেন, ভেন্টিলেটরে থাকা রোগীদের মধ্যে অনেকেই প্রাণ হারিয়েছেন। জেলাশাসকের বক্তব্য অনুযায়ী, ওই হাসপাতালে প্রায় আধঘণ্টা বন্ধ ছিল অক্সিজেন পরিষেবা। যার জেরেই রোগীদের মৃত্যু হয়।

এই মুহূর্তে যুদ্ধকালীন তৎপরতার সঙ্গে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা চলছে বলে জানা গিয়েছে। অন্য এক সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে যে, আরও ২৫ জন রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক। প্রাথমিক সূত্রে জানা গিয়েছে, অক্সিজেনের ট্যাঙ্কের ভালভে সমস্যার ফলেই এই বিপত্তি হয়েছে। এদিকে, গোটা এলাকায় যেভাবে অক্সিজেন ছড়িয়ে পড়েছে, তাতে আগুন লেগে যাওয়ার সম্ভাবনাও এই মুহূর্তে দেখা দিয়েছে। তাই ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে দমকলের একাধিক ইঞ্জিন।

ট্যাঙ্কে অক্সিজেন ভরার সময় এই বিপত্তি হয়েছে বলে খবর। এদিকে, দ্রুত রোগীদের ছোট অক্সিজেন সিলিন্ডারের সাপোর্ট দিয়ে অ্যাম্বুলেন্সের মাধ্যমে অন্য নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। জাতীয়তাবাদী কংগ্রেস পার্টির নেতা মাজ়িদ মেমন টুইট করে যাঁদের গাফিলতির ফলে এই ঘটনা ঘটেছে তাঁদের শাস্তির দাবি করেছেন। মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী আদিত্য ঠাকরে ঘটনার যথাযথ তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন।

মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবীশ বলেছেন, ‘নাসিকে যা ঘটেছে, তা ভয়ঙ্কর। অন্য রোগীদের অন্যত্র সরানো হোক। পূর্ণাঙ্গ তদন্তের দাবি জানাচ্ছি।’ এমনিতেই দেশে করোনা সংক্রমণের বৃদ্ধির জেরে অক্সিজেনের সংকট দেখা দিয়েছে। তার মধ্যেই এই দুর্ঘটন, যা উদ্বেগ আরও বাড়াল নিঃসন্দেহে।

 

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.