৩২ বছর আগে আজকের দিনেই বিশেষ এক সাফল্যের শিখর ছুঁয়েছিলেন শচীন তেন্ডুলকর!

৩২ বছর আগে আজকের দিনেই বিশেষ এক সাফল্যের শিখর ছুঁয়েছিলেন শচীন তেন্ডুলকর!
৩২ বছর আগে আজকের দিনেই বিশেষ এক সাফল্যের শিখর ছুঁয়েছিলেন শচীন তেন্ডুলকর!

১৯৮৯ সালের ১৫ নভেম্বর, আজ থেকে ৩২ বছর আগে আজকের দিনেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রেখেছিলেন এক কিশোর। পরবর্তীতে তিনিই হয়ে উঠেছিলেন ‘গড অফ ক্রিকেট’! অভিষেক টেস্টে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিরুদ্ধে করাচির বাইশ গজে নেমে মাত্র ১৫ রানেই আউট হয়ে গেলেও সেদিনই ওই কিশোর বুঝিয়েছিলেন, তিনি এখানে রাজত্ব করতেই এসেছেন। ঠিক দিন কয়েক পরে তা প্রমাণও করেন তিনি। পাকিস্তানের বিপক্ষে পরের টেস্ট ম্যাচে।

‘৮৯ সালেরই ২৪ নভেম্বর। ভারতীয় ক্রিকেটের ইতিহাসে আরেক স্মরণীয় দিন। কারণ এই দিনেই ৩২ বছর আগে সবথেকে তরুণ ক্রিকেটার হিসেবে টেস্টে অর্ধ শতরান করেছিলেন শচীন তেন্ডুলকর। হ্যাঁ, দিন কয়েক আগেই যার অভিষেক ঘটেছিল করাচির মাঠে। আজকের দিনেই তিনি জীবনের প্রথম অর্ধ শতরান করেন। পাকিস্তানের বিপক্ষে ফয়জালাবাদে সেবার ভারতের মান বাঁচিয়েছিলেন শচীন। সঙ্গে পেয়েছিলেন সঞ্জয় মঞ্জরেকরকে।

ফয়জালাবাদের সেই টেস্টে এক সময় মাত্র ১০১ রানে চার উইকেট খুইয়ে বসে ভারত। দল যখন ধুঁকছে যখন পঞ্চম উইকেটে সঞ্জয় মঞ্জরেকরের সঙ্গে ১৪৩ রানের দুর্দান্ত পার্টনারশিপ গড়েন শচীন। খেলেন ১৭২ বলে ৫৯ রানের এক দামী ইনিংস। শচীনের বয়স তখন মাত্র ১৬ বছর। উল্টোদিকে থাকা মঞ্জরেকর করেন ২৪০ বলে ৭৬ রান। দু’জনের যুগলবন্দীতে দলের হাল ফেরে। আর ভারতের সবচেয়ে তরুণ ক্রিকেটার হিসেবে টেস্টে অর্ধ শতরানের নজিরও সেদিন গড়ে ফেলেন তেন্ডুলকর।

এরপর বদলেছে কত সময়! ধীরে ধীরে শচীন হয়ে উঠেছেন ভারতীয় ক্রিকেটের অন্যতম নক্ষত্র। হয়ে উঠেছেন দলের নির্ভরশীলতার অপর নাম। একের পর এক মাইলফলক ছুঁয়েছেন মাস্টার ব্লাস্টার। গড়েছেন একাধিক রেকর্ড। যার বেশিরভাগই এখনও অটুট। তিনিই একমাত্র ক্রিকেটার যাঁর সেঞ্চুরির সেঞ্চুরি আছে ঝুলিতে। শুধু ভারতীয় ক্রিকেটেই নয়, বিশ্ব ক্রিকেটেও তাঁর অবদান কখনও ভোলার নয়। ক্রিকেটীয় ইতিহাসে শচীন এক জীবন্ত কিংবদন্তিই বটে!