‘গুমনামী’ পেল জাতীয় পুরস্কারের সম্মান! সেরা হিন্দি ছবি প্রয়াত সুশান্তের ‘ছিঁছোড়ে’

'গুমনামী' পেল জাতীয় পুরস্কারের সম্মান! সেরা হিন্দি ছবি প্রয়াত সুশান্তের 'ছিঁছোড়ে'
'গুমনামী' পেল জাতীয় পুরস্কারের সম্মান! সেরা হিন্দি ছবি প্রয়াত সুশান্তের 'ছিঁছোড়ে'

সদ্য ঘোষিত হল ৬৭তম জাতীয় পুরস্কার। বাংলা ছবির ঝুলিতে এল একগুচ্ছ সম্মান। এ বছরের জাতীয় পুরস্কারে সেরা বাংলা ছবি নির্বাচিত হয়েছে সৃজিত মুখোপাধ্যায় পরিচালিত ‘গুমনামী’। সৃজিত নিজেও পেলেন সেরা অ্যাডাপ্টেড স্ক্রিণ প্লের পুরস্কার। অপরদিকে, সেরা অরিজিনাল স্ক্রিন প্লে পুরস্কারের সম্মান পেল কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় পরিচালিত ‘জ্যেষ্ঠপুত্র’ ছবিটি। একই ছবির জন্য সেরা সঙ্গীত পরিচালকের পুরস্কার পেলেন প্রবুদ্ধ বন্দ্যোপাধ্যায়।

হিন্দিতে ছবির পুরস্কার পেল প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত অভিনীত ‘ছিঁছোরে’। মালয়ালম ছবি ‘জাল্লিকাট্টু’ ছবিটি পেল সেরা সিনেম্যাটোগ্রাফির পুরস্কার। সেরা শিশুদের ছবি নির্বাচিত হয়েছে ‘কস্তুরি’। সেরা ফিচার ফিল্মের শিরোপা উঠল মোহনলাল, কীর্তি সুরেশ অভিনীত মালয়ালম ছবি ‘মারাক্কর’-এর মাথায়। সেরা অ্যানিমেটেড ছবির পুরস্কার গেল ‘রাধা’র ঝুলিতে।

সেরা অভিনেতা হিসাবে যৌথভাবে জাতীয় পুরস্কারে ভূষিত হলেন মনোজ বাজপেয়ী ও দক্ষিণী তারকা ধনুশ। ‘ভোঁসলে’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য মনোজ পেলেন এই পুরস্কার। ধনুশ পুরস্কার পেলেন ‘আসুরান’ ছবির জন্য। অপরদিকে, অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত পেলেন জীবনের চতুর্থ জাতীয় পুরস্কারের সম্মান। ‘পঙ্গা’ এবং ‘মণিকর্ণিকা দ্য ক্যুইন অফ ঝাঁসি’ ছবির জন্য সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেলেন তিনি। প্রসঙ্গত, এর আগে ‘ফ্যাশন’ ছবির জন্য সেরা সহ-অভিনেত্রী এবং ‘ক্যুইন’ এবং ‘তনু ওয়েডস মনু রিটার্নস’-এর জন্য সেরা অভিনেত্রীর জাতীয় পুরস্কার পেয়েছিলেন কঙ্গনা।

সেরা সহ-অভিনেতার পুরস্কার পেলেন দক্ষিণী অভিনেতা বিজয় সেতুপতি। ‘সুপার ডিলাক্স’ ছবিতে অসাধারণ অভিনয়ের জন্য তিনি পেলেন এই সম্মান। অপরদিকে, ‘দ্য তাশখন্দ ফাইলস’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য সেরা সহ-অভিনেত্রীর পুরস্কার জিতে নিলেন পল্লবী যোশী।

অক্ষয় কুমার অভিনীত ‘কেশরি’ ছবির ‘তেরি মিট্টি’ গানটির জন্য সেরা গায়কের পুরস্কার পেলেন বি প্রাক। সেরা সংলাপের পুরস্কার পেয়েছে ‘দ্য তাশখন্দ ফাইলস’ ছবিটি। দেশের সবচেয়ে সিনেমা ফ্রেন্ডলি রাজ্য হিসাবে নির্বাচিত হয়েছে সিকিম।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.