ক্রাইম

নিজের মিথ্যা অপহরণের ছক কষে পুলিশের জালে ধরা পড়ল ২০ বছরের তরুণ

নতুন গাড়ি কিনতে চেয়েছিল কুড়ি বছরের তরুণ। কিন্তু হাতে টাকা না থাকায় বিকল্প রাস্তা খুঁজছিল। শেষমেশ বন্ধুদের সঙ্গে যুক্তি করে নিজেরই অপহরণের নাটক করল গাজিয়াবাদের কুড়ি বছরের আকাশ সিং। যদিও পরিকল্পনা পূর্ণ হওয়ার আগেই হাতেনাতে তাদেরকে পাকড়াও করে পুলিশ।

পুলিশের কথায়, গাজিয়াবাদের প্রগতি বিহারের বাসিন্দা আকাশ সিং নিজেই নিজের অপহরণের ছক কষে। নয়ডায় একটি হোটেলে রুম বুক করে পুরো ঘটনাটির রিহার্সালও করে তারা। এরপর সোমবার সকাল আটটার সময় সে মাকে জানায় তার বন্ধুরা তাকে ডেকে পাঠিয়েছে ফোন করে এবং কিছুক্ষণের মধ্যে বাড়ি ফিরে আসবে সে। কিন্তু দীর্ঘ সময় পেরিয়ে গেলেও আকাশ বাড়ি না ফেরায় চিন্তিত হয়ে পড়ে পরিবারের লোকজন।

আকাশের মা কিরণ সিং জানান, আকাশ রাত্রি এগারোটা নাগাদ বাড়ি না ফেরায় চিন্তিত ছিলেন তারা। সেই সময়ই দু লক্ষ টাকা মুক্তিপণ চেয়ে ফোন আসে তাদের কাছে। এমনকি ফোনের বিপরীত প্রান্তে থাকা ব্যক্তি জানান, যদি এই কথা পুলিশকে জানানো হয় সেক্ষেত্রে তার সন্তানকে খুন করে দেওয়া হবে।

এরপরই আকাশের মা-বাবা পুলিশের দ্বারস্থ হয় এবং একটি অভিযোগ দায়ের করে। তদন্তকারীরা ফোনের সূত্র ধরেই নয়ডার সেক্টর টু-র কাছে একটি হোটেলে পৌঁছায় এবং তাদের হাতেনাতে পাকড়াও করে। পুলিশ সূত্রে, অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত পড়াশোনা করা আকাশ এবং তার দুই বন্ধু অঙ্কিত কুমার এবং করণ কুমার কিডন্যাপিং এর পেছনে মূল মাথা ছিল। আকাশের পরিবার জানিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে একটি গাড়ি দাবি করছিল সে। কিন্তু তাকে নতুন গাড়ি কিনে দিতে রাজি হয়নি পরিবারের লোকজন । আর সেই কারণেই নিজের অপহরণের ছক কষেছিল আকাশ মনে করা হচ্ছে এমনটাই। পুরো ঘটনায় আকাশ এবং তার দুই বন্ধুকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.

Back to top button