প্রশংসনীয়! মাঝপথে পেট্রোল শেষ! নিজের গাড়ি থেকে তেল দিয়ে সাহায্য করলেন বাংলার এই ডেলিভারি বয়

প্রশংসনীয়! মাঝপথে পেট্রোল শেষ! নিজের গাড়ি থেকে তেল দিয়ে সাহায্য করলেন বাংলার এই ডেলিভারি বয় / Image Source- Facebook Posted By @Sanjib Chatterjee
প্রশংসনীয়! মাঝপথে পেট্রোল শেষ! নিজের গাড়ি থেকে তেল দিয়ে সাহায্য করলেন বাংলার এই ডেলিভারি বয় / Image Source- Facebook Posted By @Sanjib Chatterjee

আজকাল দুনিয়াটা পুরোটাই চলে স্বার্থের তাগিদে। স্বার্থ ছাড়া এক পাও এগোন না কেউ। এমনকি কাউকে সাহায্য করার আগেও লাভ-ক্ষতির হিসেব কষেন অনেকে। তবু এসবের মাঝেও মাঝেমধ্যে এমন কিছু ঘটনা ঘটে, যা আমাদের ফের বিশ্বাস করাতে বাধ্য করায় যে, মানবতা আজও বেঁচে রয়েছে। এখনও আমাদের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেয়, এই দুনিয়ায় কিছু ভালো মানুষ রয়েছেন আজও। যাঁরা স্বার্থের কথা না ভেবেই এগিয়ে আসেন অপরের সাহায্যে।

অতি সম্প্রতি এমনই এক ঘটনার বিবরণ ভাইরাল হল নেটদুনিয়ায়। যা দেখে হতবাক হয়ে গিয়েছেন নেটজনতা। ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়ায়। সেখানে বাসিন্দা সঞ্জীব চ্যাটার্জি নামক এক ব্যক্তি নিজের পিসিকে তার বাড়িতে দিতে যাওয়ার সময় হঠাতই তাঁর বাইকের পেট্রোল শেষ হয়ে যায়। যেখানে এই কাণ্ডটি ঘটে তার আশেপাশে জঙ্গল। জনমানব বলতে কেউ নেই। রাস্তা দিয়ে যাওয়া দু-পাঁচটা গাড়িকে হাত দিয়ে থামানোর চেষ্টা করলেও কোনও লাভ হয় না। ফলে চরম বিপদের মধ্যে যান তিনি।

অগত্যা, ২-৪ কিমি দূরের এক পেট্রোল পাম্প অবধি গাড়িটি হাঁটিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন সঞ্জীব বাবু৷ তবে কিছু দূর যাওয়ার পরই ঘটে অবাক কাণ্ড! নীলকান্ত নামের এক ব্যক্তি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন তাঁর দিকে। নিজের বোতলের জল ফেলে তাতে তেল ভরে সঞ্জীব বাবুকে দিয়ে সাহায্যও করেন তিনি। জানা গিয়েছে, তিনি পেশায় একজন ডেলিভারি এক্সিকিউটিভ। বাড়ি বাঁকুড়ারই রতনপুর এলাকায়। সাহায্য পেয়ে স্বাভাবিক ভাবেই বেশ আপ্লুত হয়ে পড়েন সঞ্জীব বাবু। নীলকান্ত বাবুকে যথাসম্ভব ধন্যবাদও জানিয়েছেন তিনি।

পরে সঞ্জীব বাবু নিজেই ঘটনাটির কথা শেয়ার করেন নেটমাধ্যমে। সঙ্গে নীলকান্তবাবুর দুটি ছবিও দেন তিনি। এরপরই ভাইরাল হয়ে ওঠে পোস্টটি। ডেলিভারি এক্সিকিউটিভটির প্রশংসায় মেতে ওঠেন নেটজনতা। বিপদের সময় তাঁর নিঃস্বার্থ এই সাহায্যের জন্য তাঁকে কুর্নিশ জানাতেও ভোলেননি কেউই। সত্যিই! আজকের দিনে দাঁড়িয়েও এই সব ঘটনাই প্রমাণ করে মানবতার ঊর্ধ্বে কিছুই নেই। মানুষের বিপদে পাশে এসে দাঁড়ানোই আসল মনুষ্যত্বের কাজ। আর ঠিক এই কাজটিই করে নিমেষেই এক নজির গড়লেন নীলকান্ত বাবু।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.