এসএসকেএম হাসপাতালের চিকিৎসক সেজে প্রতারণা, লক্ষাধিক টাকার তছরূপের অভিযোগ

এসএসকেএম হাসপাতালের চিকিৎসক সেজে প্রতারণা, লক্ষাধিক টাকার তছরূপের অভিযোগ

চিকিৎসক সেজে লকডাউনের সুযোগ নিয়ে এক ব্যক্তি লক্ষাধিক টাকার প্রতারণা করতে গিয়ে ধরা পড়লেন হাতেনাতে। জানতে পারার পরই স্থানীয়দের জনরোষে পড়েন ওই ব্যক্তি। পাড়ার ল্যাম্পপোষ্টে তাকে বেঁধে দেওয়া হলো গণপিটুনি। এই ঘটনাটি ঘটেছে বারুইপুর থানা এলাকার বিড়াল ধামনগর এলাকায়। ওই যুবকের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল যে ওই এলাকার স্থানীয়রা লকডাউনের কারণে চিকিৎসার সমস্যায় পড়েছিলেন। ওই সুযোগটিকেই কাজে লাগান অন্য জেলা থেকে আসা ওই যুবক। ফেঁদে বসেন চিকিৎসার ব্যবসা। এরপরই ঘটনার কথা জানতে পেরে উত্তেজিত হয়ে পড়েন স্থানীয়রা। মঙ্গলবার দুপুরে ওই যুবককে দীঘির সান এলাকার রাস্তায় ফেলে গণপিটুনি দেন স্থানীয় উত্তেজিত জনতা।

স্থানীয় সূত্র থেকে জানা গিয়েছে যে সৌরভ বিশ্বাস নামে অভিযুক্ত ওই যুবক মুর্শিদাবাদ জেলার বহরমপুরের বাসিন্দা। তবে নামটি আসল কিনা তা এখনো জানা যায়নি। তবে ওই নামেই বারুইপুরের টংতলা এলাকায় বছরখানেক ধরে একটি ঘরভাড়া নিয়ে থাকতে শুরু করেন ওই যুবক। স্থানীয় বাসিন্দা আরতি নস্কর অভিযোগ করেছেন যে ওই যুবক নিজেকে এসএসকেএম হাসপাতালের ডাক্তার পরিচয় দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ তার শ্বশুরের চিকিৎসার জন্য মোটা টাকা নেন তার কাছ থেকে। এমনকী তাদের পরিবারের সদস্যদের বাড়িতে না থাকার সুযোগ নিয়ে ওই যুবক তাদের আলমারির একটি নকল চাবিও তৈরি করেন এবং আলমারি থেকে মোটা টাকা এবং সোনার গয়নাও চুরি করেন বলে অভিযোগ করেছেন আরতি দেবী। এরপরই আরতি দেবীর পরিবার বারুইপুর থানায় প্রতারণার অভিযোগ জানান। ঘটনা জানাজানি হতে প্রতারিত হওয়া আরও বহু মানুষ মঙ্গলবার জড়ো হয়ে ওই যুবকের কাছে টাকার দাবী জানান। এরপরই উত্তেজিত জনতা ওই যুবককে রাস্তায় ফেলে মারধর করে। এরপরই পুলিশ এসে ওই যুবককে উদ্ধার করে।

আরও পড়ুনঃ  অগ্নিকান্ডের ভস্মীভূত পরিবারের পাশে তৃণমূল নেতা বুলবুল খান ও পঞ্চায়েত সমিতির ত্রান কর্মাধ্যক্ষ

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.