সদ্যজাত কন্যাসন্তানকে বাড়ি আনতে হেলিকপ্টার ভাড়া করলো রাজস্থানের এক পরিবার!

সদ্যজাত কন্যাসন্তানকে বাড়ি আনতে হেলিকপ্টার ভাড়া করলো রাজস্থানের এক পরিবার!
সদ্যজাত কন্যাসন্তানকে বাড়ি আনতে হেলিকপ্টার ভাড়া করলো রাজস্থানের এক পরিবার! / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ আমাদের দেশে কন্যা সন্তান জন্মালে এখনও অনেক পরিবারে দুঃখ নেমে আসে। অনেক পরিবারই আছে যারা কন্যা সন্তান কে অবজ্ঞার চোখে দেখে। আর এই দৃষ্টিভঙ্গি পালটে বেশ ধূমধাম করেই সদ্য হওয়া এক কন্যা সন্তানকে বাড়ি নিয়ে এলো তার পরিবার। এমনকি সাড়ে ৪ লক্ষ টাকার হেলিকপ্টার ভাড়া করে বাড়ি নিয়ে এলো কন্যা কে।

প্রসঙ্গত এই উল্লেখ্যযোগ্য ঘটনা টি ঘটেছে রাজস্থানের নগৌর জেলার নিমডি চন্দাবতা গ্রামে। জানা গেছে দুমাস আগে দাদুর বাড়িতে জন্ম নিয়ে এবার বাবার বাড়ি ফিরছে কন্যা। আর তার অভ্যর্থনায় কোন খামতি রাখল না কন্যার বাবা ও তার পরিবার। সাড়ে ৪ লক্ষ টাকার হেলিকপ্টার করেই বাড়ি এলো সদ্যজাত কন্যা। তার সাথে ব্যবস্থা ছিল ব্যান্ড এরও। সঙ্গে সদ্যোজাতকে গোলাপ ছড়ানো ‘রেড কার্পেট’ এর সাথে স্বাগত জানাল পরিবার।

উল্লেখ্য রামনবমীর দিনে মায়ের কোলে করে দাদুর বাড়ি থেকে বাবার বাড়িতে আসে সদ্যজাত কন্যা। ফুল ছুড়ে গ্রামবাসীরাও অভ্যর্থনা জানায় তাদের। জানা গেছে ৩৫ বছর পর তাদের পরিবারে কন্যা সন্তানের জন্ম হওয়ায় এরূপ আয়োজন পরিবারের। কন্যার বাবা হনুমানরাম প্রজাপত এর মতে, বাড়িতে কন্যা সন্তান জন্ম নিলে উৎসব করেই তা পালন করা উচিত। সেই বার্তায় তিনি দিতে চেয়েছেন বলে জানান।

অন্যদিকে হেলিকপ্টারে করে সদ্যজাতকে স্বাগত জানাতে হেলিকপ্টার নামানোর জন্য দুই গ্রামেই হেলিপ্যাড বানাতে হয়। এর জন্য প্রশাসনের অনুমতি নিতে হয় পরিবারকে। তারপর জেলা আধিকারিক এর ছাড়পত্র পেয়ে সদ্যজাত কে নিয়ে হেলিকপ্টার উড়তে শুরু করে। সদ্যজাত কন্যার দাদুর বাড়ি ও বাবার বাড়ি এই দুই গ্রামের দুরত্ব প্রায় ৩০ কিলোমিটার। আর এই দূরত্ব অতিক্রম করতে মাত্র ২০ মিনিট সময় নেয় হেলিকপ্টার টি।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.