চিনা সেনার মোকাবিলায় ত্রিশূল, বজ্রের মতো ‘সনাতনী’ হাতিয়ার তৈরি ভারতীয় সেনার জন্য!

চিনা সেনার মোকাবিলায় ত্রিশূল, বজ্রের মতো 'সনাতনী' হাতিয়ার তৈরি ভারতীয় সেনার জন্য!
চিনা সেনার মোকাবিলায় ত্রিশূল, বজ্রের মতো 'সনাতনী' হাতিয়ার তৈরি ভারতীয় সেনার জন্য!

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ ভারত-চিন প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় উত্তেজনা এখনও বর্তমান। গালওয়ানে লোহার রড নিয়ে অতর্কিতে হামলা চালিয়েছিল চিনা সেনা। সেই হামলায় বেশ কয়েকজন ভারতীয় সেনার মৃত্যু হয়। সেই ঘটনার পর থেকেই উত্তেজনা অব্যাহত। দফার পর দফা বৈঠকের পরেও সমস্যার কোনও স্থায়ী সমাধান সূত্র বেরিয়ে আসেনি। বারবার ভারতীয় সীমায় ঢোকার চেষ্টা চালিয়েছে চিনা সেনা।

এবার চিনা সেনার মোকাবিলায় ভারতীয় সেনা হাতে আসতে চলেছে ত্রিশূল এবং বজ্রের মতো ‘সনাতনী’ অস্ত্র। এমনই অস্ত্র তৈরি হচ্ছে ভারতে। সেনার বরাত পেয়ে ত্রিশূল, বজ্রের মতো অস্ত্র তৈরি করছে বলে দাবী করেছে উত্তরপ্রদেশের অপাস্ত্রন প্রাইভেট লিমিটেড নামে একটি সংস্থা। শুধু ত্রিশূল বা বজ্রই নয়, দণ্ড, ভদ্র, স্যাপার পাঞ্চ নির্মাণ করছে এই সংস্থা। সংস্থার কর্তা মোহিত কুমার জানিয়েছেন, ‘আমাদের জওয়ানদের বিরুদ্ধে রড, লাঠি ব্যবহার করেছিল চিনারা। আমাদের ওই প্রাণঘাতী অস্ত্র নির্মাণের বরাত দিয়েছিল সেনাবাহিনী। প্রতিপক্ষের মতোই আমরাও সনাতনী হাতিয়ার নির্মাণ করেছি।’

তিনি আরও দাবী করেছেন যে, সম্মুখসমরে ত্রিশূল কার্যকরী। শুধু তাই নয়, শত্রুর গাড়ি আটকাতেও সমর্থ এই হাতিয়ার। স্পাইক থাকায় বজ্র হাতিয়ার মুষ্টি যুদ্ধে সহায়তা করবে সেনাকে। একইসঙ্গে এটা দিয়ে বুলেট প্রুফ গাড়ির চাকায় পাংচারও করা যাবে বলে দাবী করেছেন মোহিত কুমার। তবে, এর মধ্যে কোনও হাতিয়ারেই গুরুতর আঘাত লাঘার সম্ভাবনা নেই। এই হাতিয়ারগুলি সেনাবাহিনীর হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে কিনা তা স্পষ্ট করেননি মোহিত।

তবে, তিনি দাবী করেছেন, এগুলি সাধারণ মানুষের কাছে উপলব্ধ হবে না। শুধু জওয়ানরাই ব্যবহার করতে পারবেন। তবে, এই অস্ত্র নিয়ে সরকার বা সেনার পক্ষ থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া মেনেলি এখনও।