নৃশংস আচরণ! মালদায় তিনমাসের অন্তঃসত্ত্বাকে ধর্ষণের চেষ্টা, ব্যর্থ হয়ে পেটে ঘুঁষি

নৃশংস আচরণ! মালদায় তিনমাসের অন্তঃসত্ত্বাকে ধর্ষণের চেষ্টা, ব্যর্থ হয়ে পেটে ঘুঁষি
নৃশংস আচরণ! মালদায় তিনমাসের অন্তঃসত্ত্বাকে ধর্ষণের চেষ্টা, ব্যর্থ হয়ে পেটে ঘুঁষি / ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিনিধি, মালদাঃ এক কথায় নৃশংস, চূড়ান্ত অমানবিক এবং পাশবিক আচরণ। বাড়ি ফাঁকা পেয়ে, তিন মাসের এক অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠল এক যুবকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে ইংরেজবাজারের কাজিগ্রাম গ্রাম পঞ্চায়েতের জোতপৃথ্বী গ্রামে। ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে, ওই যুবক অন্তঃস্বত্তার পেটে ঘুষি মারে বলে অভিযোগ। আহত ওই গৃহবধূকে মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আক্রান্তের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার রাতে প্রতিবেশীর অনুষ্ঠান বাড়িতে গিয়েছিলেন আক্রান্ত গৃহবধূর স্বামী। সেই সুযোগে, ওই গৃহবধূকে একা পেয়ে তাঁকে সুশান্ত মণ্ডল নামে তাঁদের প্রতিবেশী এক যুবক ধর্ষণের চেষ্টা করে বলে অভিযোগ। তবে তিন মাসের অন্তঃস্বত্তা ওই গৃহবধূ সর্বশক্তি দিয়ে ওই যুবককে বাধা দিলে, অভিযুক্ত যুবক ওই মহিলার পেটে ঘুষি মারে বলে জানা গিয়েছে। এরপর ঘটনা জানাজানি হতেই, এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায় ওই যুবক।

অন্যদিকে, শারীরিক অবস্থা খারাপ হতে থাকায়, শুক্রবার গভীর রাতে ওই বধূকে মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নিগৃহীত বধূর স্বামী দীপঙ্কর মণ্ডল জানিয়েছেন, অন্নপ্রাশনের অনুষ্ঠান উপলক্ষে তিনি প্রতিবেশীর বাড়ি গিয়েছিলেন। সেই সুযোগে পাড়ার যুবক সুশান্ত মণ্ডল তাঁর গর্ভবতী স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এই ঘটনার জেরে অসুস্থ হয়ে পড়ায়, তাঁর স্ত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দীপঙ্কর মণ্ডল দোষীর উপযুক্ত শাস্তি দাবি করেছেন।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.