দেশ কা নেত্রী ক্যাইসি হো মমতাদিদি জ্যাইসি হো! স্লোগান তুললেন অভিষেক

দেশ কা নেত্রী ক্যাইসি হো মমতাদিদি জ্যাইসি হো! স্লোগান তুললেন অভিষেক
দেশ কা নেত্রী ক্যাইসি হো মমতাদিদি জ্যাইসি হো! স্লোগান তুললেন অভিষেক

বাংলা ছেড়ে এবার বাইরের রাজ্য দখলে মরিয়া তৃণমূল। ত্রিপুরার পর তাই গোয়ায় নিজেদের পায়ের মাটি মজবুত করতে উঠে পড়ে লেগেছে ঘাসফুল শিবির। আগামী ২৮ তারিখ গোয়া যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্বয়ং। এবার সেই গোয়াতেই আগামী তিনমাসের মধ্যে তৃণমূল সরকার গঠন করবে বলে হুঙ্কার দিলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন দিনহাটায় উদয়ন গুহর হয়ে প্রচারে যান অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানেই গোয়ায় আগামী তিনমাসের মধ্যে সরকার গঠনের কথা বলেন তিনি। এদিন তিনি আরও বলেন ”তৃণমূল শুধু বাংলার মাটিতে সীমাবদ্ধ নয়। আমরা ত্রিপুরায় গিয়েছি। আমরা গোয়ায় ঢুকেছি। আমরা আরও ৫-৭টা রাজ্যে আগামী এক মাসের মধ্যে যাব।”

তৃণমূলের সর্বভারতীয় সভাপতির পদ পেয়েই তিনি জানিয়েছিলেন, ভিন রাজ্যেও এবার নিজেদের প্রতিষ্ঠা করবে তাঁরা। তবে শুধু নির্বাচন লড়তে নয় বরং বিজেপি সরকারকে উৎখাতের কথাও স্পষ্ট করে দিয়েছিলেন সোমবার ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ। সেই মতই লোকসভা নির্বাচনের আগে ত্রিপুরার বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে এগোচ্ছে তৃণমূল।

এদিকে উত্তর পশ্চিমের রাজ্যেও প্রভাব বিস্তার করতে চাইছে তৃণমূল। তাই সৈকত শহরেও কিভাবে নিজেদের ঘাঁটি শক্ত করা যায় তাই নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রাথমিক পাঠ দিতে শুরু করেছে তৃণমূল। আর গোয়ায় খুব শীঘ্রই সরকার গঠন হচ্ছে বলে দাবি করেন অভিষেক। তাঁর দাবি,”আগামী তিন মাসের মধ্যে গোয়ায় নির্বাচন। ৪০টি বিধানসভা আসন আছে। শূন্য থেকে তৃণমূল শুরু করেছে। লিখে রাখুন তিন মাসের মধ্যে গোয়ায় জোড়াফুল ফুটবে। তৃণমূলের সরকার প্রতিষ্ঠা হবে”।

তবে শুধু গোয়া নয় তারপর ত্রিপুরা, মেঘালয়, অসম ও উত্তরপ্রদেশেও তৃণমূল শীঘ্রই সরকার গঠন করবে বলে দাবি করেন তিনি। তাঁর কথায়, “বাংলা পথ দেখিয়েছে। আজ ভারতকে পথ দেখাচ্ছে জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী একটাই আওয়াজ দেশ কা নেত্রী ক্যাইসি হো মমতাদিদি জ্যাইসি হো।”