ত্রিপুরায় ঐতিহাসিক পদযাত্রা করতে চলেছেন অভিষেক

ত্রিপুরায় ঐতিহাসিক পদযাত্রা করতে চলেছেন অভিষেক
ত্রিপুরায় ঐতিহাসিক পদযাত্রা করতে চলেছেন অভিষেক

ত্রিপুরায় নিজেদের অস্তিত্বের প্রমাণ দিতে সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছে তৃণমূল। একের পর এক কর্মীসভা করছে তাঁরা সেখানে। এবার ত্রিপুরায় ঐতিহাসিক পদযাত্রার আয়োজন করতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। এই পদযাত্রার নেতৃত্ব দেবেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

তৃণমূল সূত্রে খবর, আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডাকে ঐতিহাসিক পদযাত্রার আয়োজন করতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। বৃহস্পতিবার এই নির্ঘণ্ট প্রকাশ করা হয় দলের তরফে। দুপুর দুটো থেকে শুরু হবে এই পদযাত্রা।ত্রিপুরায় পায়ের তলার মাটি শক্ত করতে আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল তৃণমূল কংগ্রেস তা বলার অপেক্ষা রাখেনা।

ত্রিপুরায় কিছুদিন আগেই যখন তৃণমূলের যুবনেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য, সুদীপ রাহা, জয়া সাহা এবং সুস্মিতার মত যুব নেতা-নেত্রীরা বিজেপির হাতে আক্রান্ত হন। তখনই ত্রিপুরা পুলিশের সাথে রীতিমতো বচসায় জড়িয়ে জামিন করিয়ে আনেন সকল যুব নেতা-নেত্রীদের। কলকাতায় এনে চিকিৎসা করান তাঁদের। একইসঙ্গে সেখানে বিজেপির ক্ষমতাকে শেষ করার হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

অভিষেকের হুঁশিয়ারি ছিল, বিজেপি ত্রিপুরার ক্ষমতা থেকে সরতে চলেছে। তিনি খুব শীঘ্রই ফিরে আসবেন ত্রিপুরায় । যদি কিছু করার থাকে তা যেন বিপ্লব দেব করে নেন। সেই হুঁশিয়ারি মতই কথা রাখতে ফের আবার ত্রিপুরার মাটিতে পা রাখতে চলেছে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। তিনি জানিয়েছেন এই পদযাত্রা ঐতিহাসিক হবে। তৃণমূল বাংলা ছাড়িয়ে ছড়িয়ে পড়বে ত্রিপুরাসহ গোটা দেশে । জাতীয় দল হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে এই সুযোগকেই কাজে লাগাতে চাইছে তৃণমূল, তেমনটাই মত রাজনৈতিক মহলের একাংশের।