বাংলার লুঠ করা টাকা দিয়েই গোয়াতে দল বাড়াচ্ছেন মমতা! কটাক্ষ অধীরের

বাংলার লুঠ করা টাকা দিয়েই গোয়াতে দল বাড়াচ্ছেন মমতা! কটাক্ষ অধীরের
বাংলার লুঠ করা টাকা দিয়েই গোয়াতে দল বাড়াচ্ছেন মমতা! কটাক্ষ অধীরের

বাংলার লুঠ করা টাকা দিয়েই গোয়াতে দল বাড়াচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মুখ্যমন্ত্রীর গোয়া সফরকে কার্যত এই ভাবেই কটাক্ষ করলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী। একের পর এক বাক্যবাণে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করেন অধীর চৌধুরী।

উত্তরবঙ্গ সফর সেরে এবার সৈকত রাজ্যে তিনদিনের টানা কর্মসূচি নিয়ে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জানা গিয়েছে সেখানে তার উপস্থিতিতে একাধিক রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব তৃণমূলে যোগদান করতে পারেন। অন্যদিকে গোয়ায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূলের একটি পার্টি অফিস উদ্বোধন করার কথা রয়েছে।

এসব কিছু নিয়েই এই দিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে নিশানা করলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী। এদিন অধীর বাবু অভিযোগ করে বলেন, “দিদি টাকার থলি নিয়েই গোয়াতে গিয়েছেন। বাংলার টাকা লুট করে গোয়াতে দল বেড়াচ্ছেন তিনি। গোয়াতে মাত্র ১৪ লাখ ভোটার। টাকা ছড়ালেই ওখানে বিধায়ক কেনা যায়”। একইসঙ্গে গোয়ায় বিজেপির বিরুদ্ধে লড়তে গেলে তাকে কংগ্রেসের সঙ্গে কথা বলতে হতো বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এর পরেই তীব্র কটাক্ষ করে অধীর চৌধুরী জানান, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নন্দীগ্রাম এবং সিঙ্গুরে যে আন্দোলন করেছেন তা এখন ইতিহাস হয়ে গিয়েছে। ক্ষমতায় আসার পর তিনি বাংলায় কোনও আন্দোলন করেননি বলেই দাবি প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির। একই সঙ্গে তার আরও কটাক্ষ, “ক্ষমতায় আসার পর তিনি একটাই আন্দোলন করেছেন তা হলো রাত জেগে নারদ কাণ্ডে রাজীব কুমার কে বাঁচানোর জন্য”।