কংগ্রেস ভেঙেই তৃণমূলের উৎপত্তি! মমতাকে ফের স্মরণ করালেন অধীর

কংগ্রেস ভেঙেই তৃণমূলের উৎপত্তি! মমতাকে ফের স্মরণ করালেন অধীর
কংগ্রেস ভেঙেই তৃণমূলের উৎপত্তি! মমতাকে ফের স্মরণ করালেন অধীর

‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজনৈতিক ভাবে কংগ্রেসকে হত্যা করছেন।’ শুক্রবার ফের একবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সরাসরি আক্রমণ করলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। এদিন একইসঙ্গে কংগ্রেস ভেঙেই তৃণমূলের উৎপত্তি সে কথাও আরো একবার স্মরণ করিয়ে দিলেন মুর্শিদাবাদের সাংসদ।

প্রায় রোজ নামচায় পরিণত হয়েছে। প্রতিদিন কংগ্রেস ভেঙে তৃণমূলে কার্যত ‘ভর্তি’ চলছে। শুক্রবার তা নিয়েই ক্ষোভ প্রকাশ করলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘২০১১ সালে কংগ্রেসের বিপুল সমর্থন না পেলে সেদিন আপনি বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হতে পারতেন না। কংগ্রেসের সাহায্য নিয়ে সেদিন আপনি মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন। তারপর যখন ক্ষমতায় এলেন ধীরে ধীরে কংগ্রেসকে গ্রাস করেছেন। আজও সেই ধারা অব্যাহত।’

বিধানসভায় একেবারে ধুলিস্যাৎ হয়ে গিয়েছে বাম কং জামানা। যা নিয়ে শাসক শিবিরও কিছুটা বিমর্ষ। আক্ষেপের সুর শোনা গিয়েছে মুখ্যমন্ত্রির গলাতেও। তার জন্য সম্পূর্ন রূপে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দায়ী করেন অধীর। তিনি বলেন, ‘ রাজ্যে কংগ্রেসকে যে ভাবে হত্যা করা হয়েছে। তার পরিণাম বিজেপির বিপুল উত্থান। মুখ্যমন্ত্রী নিজেই বিজেপিকে জায়গা করা দিয়েছেন। বিজেপির সঙ্গে গোপন আঁতাত চলেছে। দিদি মোদি সমঝোতা হয়েছে। বাংলা তোমার দিল্লি আমার।’

তবে ফের কংগ্রেস বাংলায় স্বমহিমায় ফিরবে বলে আশাবাদী তিনি। অন্যদিকে এদিন বিধানভবনে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি শ্রী অধীর রঞ্জন চৌধুরীর হাত ধরে উত্তর ২৪ পরগণা ও কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের প্রায় চারশ কর্মী কংগ্রেসে যোগ দান করেন।