অধীরেই আস্থা! লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা থাকছেন বহরমপুরের সাংসদ

অধীরেই আস্থা! লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা থাকছেন বহরমপুরের সাংসদ
অধীরেই আস্থা! লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা থাকছেন বহরমপুরের সাংসদ

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ গত কয়েকদিন ধরেই জল্পনা ছিল রাজনৈতিক মহলে, অধীরকে লোকসভার দলনেতার পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হতে পারে৷ বুধবার কংগ্রেসের সংসদীয় কমিটির বৈঠকের পর, সেই জল্পনায় জল ঢেলেছে কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্ব। আপাতত লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা থাকছেন অধীর রঞ্জন চৌধুরীই। অন্তত সংসদের বাদল অধিবেশনের আগে তাঁকে সরানো হচ্ছে না। এমনটাই কংগ্রেস সূত্রের খবর।

কংগ্রেস সূত্রে বলা হয়েছে, বাদল অধিবেশন শুরু হওয়ার আগে আর এক সপ্তাহও সময় বাকি নেই৷ এই পরিস্থিতিতে নতুন কাউকে দায়িত্ব দেওয়া যুক্তিসম্মত হবে না। তবে, এও জানা গিয়েছে যে, এখন না হলেও, আগামী দিনে লোকসভায় বিরোধী দলনেতার পদ খোয়াতে পারেন অধীর রঞ্জন চৌধুরীই।

এদিনের ভার্চুয়াল বৈঠকে কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীর উপস্থিতিতে লোকসভা ও রাজ্যসভার কংগ্রেসের ভূমিকা কী হবে তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে যে সমস্ত বিল আনা হবে, তাতে কংগ্রেসের কি ভূমিকা থাকবে তা ঠিক করে দিয়েছেন সোনিয়া গান্ধী। তবে, অধীর চৌধুরীর দলনেতার পদে থাকা বা না থাকা নিয়ে কোনও আলোচনা হয়নি বলেই সূত্রের খবর। উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের পর অধীরকে লোকসভার দলনেতার দায়িত্ব দিয়েছিল দল৷ সূত্রের খবর, লোকসভার বাদল অধিবেশনের পরেই কংগ্রেসের সাংগঠনিক স্তরে বড় ধরনের রদবদল হতে পারে। সেই সময়ই অধীরের লোকসভায় বিরোধী দলনেতার পদে থাকা নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এবার কংগ্রেসেও চালু হচ্ছে এক ব্যক্তি-এক পদ নীতি। এই নীতির কারণেই পদ খোয়াতে পারেন বহরমপুরের সাংসদ। লোকসভার বিরোধী দলনেতা হওয়ার পাশাপাশি এই মুহূর্তে প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতিও তিনি। একুশের বাংলার বিধানসভা নির্বাচনে, কংগ্রেস একটিও আসন না পাওয়ার পর, দল চাইছে, এবার প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি পুরোপুরি বাংলার রাজনীতিতে নজর দিন। সেই জন্যই তাঁকে লোকসভার দলনেতার পক্ষ থেকে সরানো হতে পারে।

বাংলার বিধানসভা নির্বাচনের সময়, লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা হিসাবে কাজ করছিলেন পাঞ্জাবের সাংসদ রবনীত সিং বিট্টো। অধীর রঞ্জন চৌধুরী বিরোধী দলনেতার পদ থেকে সরলে, তাঁর পরিবর্তে ওই পদের দায়িত্ব দেওয়ার জন্য উঠে আসছে কেরলের শশী থারুর এবং পাঞ্জাবের মনীষ তিওয়ারির নামও। তবে সেটা পরের কথা। আপাতত লোকসভার বিরোধী দলনেতার পদ থেকে সরছেন না অধীর রঞ্জন চৌধুরী।