অলিম্পিক্স থেকে বাড়ি ফিরেই শুনলেন বোনের মৃত্যুসংবাদ! তীব্র শোকে ভেঙে পড়লেন এই ভারতীয় অ্যাথলিট

অলিম্পিক্স থেকে বাড়ি ফিরেই শুনলেন বোনের মৃত্যুসংবাদ! তীব্র শোকে ভেঙে পড়লেন এই ভারতীয় অ্যাথলিট
অলিম্পিক্স থেকে বাড়ি ফিরেই শুনলেন বোনের মৃত্যুসংবাদ! তীব্র শোকে ভেঙে পড়লেন এই ভারতীয় অ্যাথলিট

সদ্য শেষ হয়েছে টোকিও অলিম্পিক্স ২০২০। খেলার এই মেগা ইভেন্টে নিজেদের সবটুকু উজার করে দিয়েছিলেন ভারতীয় অ্যাথলিটরা। অনেকেরই একটুর জন্য হাতছাড়া হয়েছে মেডেল। তবে চেষ্টার কোনও কসুর ছিল না। আপাতত রাজকীয় অভ্যর্থনার মধ্য দিয়ে অলিম্পিয়ানরা বাড়ি ফিরছেন। নিজেদের পরিবারের কাছে ফিরতে পেয়ে প্রত্যেক অ্যাথলিটই খুব উচ্ছ্বসিত। কিন্তু এর মধ্যেই এক অ্যাথলিট বাড়ি ফেরাটা হয়ে রইল মারাত্মক শোকের। কারণ বাড়ি ফিরেই তিনি শুনলেন তাঁর ‘বোন আর নেই’। শোকে যেন পাথর হয়ে গেলেন অ্যাথলিট ধনলক্ষ্মী শেখর।

উল্লেখ্য, গত শনিবারই অলিম্পিক্স থেকে একসঙ্গে বাড়ি ফিরেছেন ভারতীয় স্প্রিন্টার শুভা ভেঙ্কটারমন ও ধনলক্ষ্মী শেখর। কিন্তু ধনলক্ষ্মী আন্দাজও করতে পারেননি বাড়িতে ফিরেই তাঁকে শুনতে হবে এমন দুঃসংবাদ! অলিম্পিক্স চলাকালীনই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ধনলক্ষ্মীর বোন গায়ত্রী। কিন্তু অ্যাথলিটের মনোসংযোগ ঠিক রাখতে তাঁকে এতদিন এই খবর দেননি মা ঊষা। এদিকে বাড়ি ফিরেই বোনের মৃত্যুসংবাদ পেয়ে নিজেকে আর ধরে রাখতে পারেননি ধনলক্ষ্মী। কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

প্রসঙ্গত, ধনলক্ষ্মী টোকিও অলিম্পিক্সে ভারতের মহিলা ৪x৪০০ মিটার রিলে দলের রিজার্ভ স্প্রিন্টার ছিলেন। প্রথম দলে ছিলেন শুভা। পাটিয়ালার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ স্পোর্টের ট্রায়ালে নিজের সেরাটা দিয়ে জিতে অলিম্পিক্সের টিকিট পেয়েছিলেন ধনলক্ষ্মী। তাঁর সবচেয়ে বড় সমর্থক ছিলেন তাঁর মা এবং তাঁর বোন। অ্যাথলিটের টোকিও যাওয়ার পিছনেও তাঁদের অবদান কম নয়। কিন্তু সেখান থেকে ফিরে সেই বোনেরই মৃত্যুর খবর পেয়ে স্বাভাবিকভাবেই ভীষণ ভেঙে পড়েছেন এই ভারতীয় অলিম্পিয়ান।