ঠাকুরনগরে অমিত শাহের সভার শেষমুহূর্তের প্রস্তুতি চলছে জোরকদমে

ঠাকুরনগরে অমিত শাহের সভার শেষমুহূর্তের প্রস্তুতি চলছে জোরকদমে
Image Source: Screengrab from Facebook Video Posted By @amitshahofficial
আগামীকাল বৃহস্পতিবার ঠাকুরনগরের সভা করতে আসবেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বুধবার সেই উপলক্ষে প্রস্তুতিপর্ব ছিল তুঙ্গে। রাজনীতির হাওয়া-বাতাস অনেক দিন ধরেই আভাস দিচ্ছিল, আগামী লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির অন্যতম টার্গেট বাংলা। ঠাকুরনগরের জনসভায় গত ২ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভাষণ সেই আভাসকে আরও স্পষ্ট করে দেয়।
আগের দিন পেশ হওয়া বাজেট ছিল ভোটে ঝড় তোলার জন্য বিজেপির অন্যতম প্রধান হাতিয়ার। সেই হাতিয়ারের প্রথম প্রকাশ্য প্রয়োগটা মোদী করেন বাংলার মাটিতে দাঁড়িয়েই। “দেশের ইতিহাসে প্রথম বার কৃষক এবং শ্রমিকদের জন্য খুব বড় প্রকল্প ঘোষণা করা হয়েছে,’’— ঠাকুরনগরের সভা থেকে এমনই দাবি করেন প্রধানমন্ত্রী। হিংসার প্রশ্নে তীব্র কটাক্ষ করেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে। আক্রমণ করেন সিন্ডিকেট প্রশ্নেও।
গত ৩০ জানুয়ারি অমিত শাহের সভা হওয়ার কথা ছিল। সেই সভা থেকে মতুয়াদের নাগরিকত্ব প্রদান সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা হতে পারে বলে আশাবাদী ছিলেন মতুয়ারা। শেষ মুহূর্তে সভা বাতিল হওয়ায় হতাশায় বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন অনেকে। এই অবস্থায় ঠাকুরনগরের মঞ্চ খুলতে বারণ করেন শাহ। বলেন, দিন কয়েকের মধ্যেই সেখানে সভা করতে আসবেন তিনি। বিজেপির নেতারা মতুয়াদের ক্ষোভ প্রশমনের চেষ্টা করতে থাকেন। অন্যদিকে এই ক্ষোভ উস্কে দিতেও প্রকাশ্যে নেমে পড়ে তৃণমূল।
অবশেষে, বৃহস্পতিবার ঠাকুরনগরে আসতে চলেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ক’দিন ধরেই টানটান উত্তেজনা রয়েছে নাগরিকত্ব নিয়ে ওখানে কী বার্তা দেবেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তা নিয়ে। বিজেপি সাংসদ শান্তনু ঠাকুর নিজে মঞ্চ এবং সংলগ্ন অঞ্চলের ব্যবস্থাপনার তদারকি করেছেন।
নিজের কানে বক্তৃতা শুনতে ইতিমধ্যে দূরদূরান্ত থেকে আসতে শুরু করেছেন মতুয়ারা। সম্পূর্ণ হয়েছে হেলিকপ্টারের মহড়া। সভার শেষমুহূর্তের প্রস্তুতি চলছে জোরকদমে।

আরো পড়ুনঃ   আট দফার ভোট ঘোষণা করে রাজ্যকে অপমান করেছে নির্বাচন কমিশন, ক্ষোভ মমতার