হুবহু ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডার’-এর নকল! নির্বাচনে জিতলে, মহিলাদের মাসোহারার ঘোষণা কেজরিওয়ালের

হুবহু ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডার’-এর নকল! নির্বাচনে জিতলে, মহিলাদের মাসোহারার ঘোষণা কেজরিওয়ালের
হুবহু ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডার’-এর নকল! নির্বাচনে জিতলে, মহিলাদের মাসোহারার ঘোষণা কেজরিওয়ালের

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ ঠিক যেন লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের মতোই। এবার বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর সবথেকে চর্চিত এবং জনপ্রিয় প্রকল্পকেই অনুসরণ করলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। পঞ্জাব নির্বাচনে জিতে ক্ষমতায় এলে, আপ-এর পক্ষ থেকে সকল প্রাপ্তবয়স্ক মহিলার হাতে তুলে দেওয়া হবে মাসোহারা। পঞ্জাবের সমস্ত মহিলাকে হাজার টাকা করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেন কেজরিওয়াল। তাঁর এই ঘোষণার পরই তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী, সমর্থকদের পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে যে, বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর প্রকল্পকেই অনুকরণ করতে চাইলেন কেজরিওয়াল।

২০২২ সালে পঞ্জাবে বিধানসভা নির্বাচন রয়েছে। আসন্ন এই নির্বাচনে পঞ্জাবে নিজেদের পায়ের তলার জমি শক্ত করতে বদ্ধপরিকর আম আদমি পার্টি। তাই নিত্য নতুন অভিনব প্রকল্পের ঘোষণা করেছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। এবার তাঁর চমক মহিলাদের মাসোহারা। তিনি জানিয়েছেন, ‘এটা দেশে সবচেয়ে বড় মহিলাদের মাসোহারা প্রকল্প হতে চলেছে। এমন কর্মসূচি আগে কখনও কোনও সরকার নেয়নি। ১৮ ঊর্ধ্ব প্রত্যেক মহিলাই পঞ্জাবে প্রত্যেক মাসে এক হাজার টাকা করে পাবেন। প্রতি মাসে এই টাকাটা তাঁদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পৌঁছে যাবে।’ দু’দিনের জন্য পঞ্জাবের সফরে গিয়ে তাঁর ‘মিশন পঞ্জাব’ কর্মসূচিতে একটি সভা থেকে এই ঘোষণা করেন কেজরিওয়াল।

তবে, কেজরিওয়াল যতই এই প্রকল্পটিকে দেশের মধ্যে মধ্যে প্রথম বলে দাবি করুন না কেন, এই বক্তব্য মানতে রাজি নয় তৃণমূল কংগ্রেস। জোড়াফুল শিবিরের দাবি, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জনপ্রিয় লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পই দেশের মধ্যে প্রথম। তাঁকেই অনুসরণ করেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী।

এর পাশাপাশি পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নিকেও একহাত নেন। তিনি বলেন, ‘আজকাল পঞ্জাবে নকল কেজরিওয়াল ঘুরে বেড়াচ্ছে। আমি যা প্রতিশ্রুতি দিই, সেটাই পরদিন তিনি ঘোষণা করে দেন। যদিও সেটা কার্যকর হয় না। ওঁর থেকে সাবধান থাকবেন। একমাত্র আসল কেজরিওয়ালই এই প্রতিশ্রুতি রাখতে পারবে।’ জানা গিয়েছে, পঞ্জাবের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কেজরিওয়াল ইতিমধ্যেই ৩০০ ইউনিট ইলেকট্রিসিটি বিনামূল্যে করে দেওয়ার ঘোষণা করেছেন। ২৪ ঘণ্টার জন্য বিনামূল্যে চিকিৎসা এবং ওষুধ পরিষেবারও আশ্বাস দিয়েছেন কেজরিওয়াল।