মাদককাণ্ডে ফের আবেদন খারিজ আরিয়ান খানের, দিন কাটাতে হবে আর্থার রোড জেলে

মাদককাণ্ডে ফের আবেদন খারিজ আরিয়ান খানের, দিন কাটাতে হবে আর্থার রোড জেলে
মাদককাণ্ডে ফের আবেদন খারিজ আরিয়ান খানের, দিন কাটাতে হবে আর্থার রোড জেলে

মাদক যোগে এন সি বি হেফাজতে রয়েছে আরিয়ান খান। শনিবার রাতে একটি রেভে পার্টি চলা কালীন মাদক দ্রব্য সহ আরিয়ানকে আটক করে এন সিবির আধিকারিক। তারপরই টানা ১৬ ঘণ্টার জেরার পর গ্রেফতার করেন শাহরুখ পুত্রকে। আর সেই নিয়েই আপাতত তোলপাড় সর্বত্র। সূত্রের খবর জেরার সময় কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন আরিয়ান খান। তাছাড়াও সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি ভাইরাল হয় যেখানে এন সি বির গাড়ির মধ্যে চোখে জল দেখা যায় আরিয়ানের।

মোট তিনটি জামিনের আবেদন করা হয়েছিল আদালতে। আজ সেই তিনটি আবেদনই খারিজ করল মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের প্রধান আরএম নেরলিকার। শুধু আরিয়ান খান নয় সঙ্গে তাঁর বন্ধু আরবাজ মার্চেন্ট এবং মুনমুন ধামেচার জামিনের আবেদন খারিজ করে আদালত। আজ থেকে শাহরুখ পুত্রের ঠাঁই আর্থার রোড জেলে। আজ ফের আরিয়ান খানের আইনজীবী সতীশ মানেশিন্দে বলেন আরিয়ানের কাছে কোনও মাদক দ্রব্য উদ্ধার করা হয়নি। এমনকি তিনি দাবি করেন হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের কথা এনসিবি উল্লেখ করছে তার সঙ্গে মাদক চক্রের কোনও যোগ নেই।

এদিকে আরিয়ান খান বলেন ” আমি আমি ২৩ বছর বয়সী একটা ছেলে, আমার আগে কোনও ক্রিমিন্যাল রেকর্ড নেই। আমাকে ওখানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। ১৩০০ লোক উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু গ্রেফতার করা হলো মাত্র ১৭ জনকে।আমার ফোনের সমস্ত হোয়াটসঅ্যাপ ডেটা সংগ্রহ করে ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। আমি যে পরিবারের ছেলে সেখান থেকে নিশ্চয় পালানোর চেষ্টা করব না। এমনকি স্টারের ছেলে বলে প্রমাণ হারিয়ে ফেলার চেষ্টাও করব না।”