এককালীন গুরু-শিষ্য এবার একে অপরের যুযুধান, শিলিগুড়িতে মুখোমুখি অশোক-শংকর

এককালীন গুরু-শিষ্য এবার একে অপরের যুযুধান, শিলিগুড়িতে মুখোমুখি অশোক-শংকর
এককালীন গুরু-শিষ্য এবার একে অপরের যুযুধান, শিলিগুড়িতে মুখোমুখি অশোক-শংকর

আসন্ন বিধানসভা নির্বাচন যে অন্যান্য বছরের তুলনায় নজিরবিহীন হতে চলেছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এবারের নির্বাচনের পরোতে পরোতে বেরিয়ে আসছে চমক। শিলিগুড়ির বাম প্রার্থী অশোক ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে বিজেপি প্রার্থী হিসেবে দাঁড় করিয়েছে শংকর ঘোষ কে। এই অশোক ভট্টাচার্যের এককালীন শীর্ষ সদ্য সিপিএম ত্যাগী শংকর ঘোষ। তাই বলা যায় এবার বিধানসভা নির্বাচনের শিলিগুড়ি কেন্দ্রের মুখোমুখি গুরু শিষ্য।

নির্বাচনের আগে যখন দলবদল এর হিড়িক পড়ে ছিল ঠিক তখনই চলতি মাসে বাম শিবির ছেড়ে গেরুয়া শিবিরে যোগদান করেন শংকর ঘোষ। দল ছাড়ার কারণ হিসেবে তিনি জানিয়েছিলেন, সিপিএমে এখন নিজেই ঠিক নেই নতুনদের জায়গা দিচ্ছেনা সিপিএম। একই সঙ্গে আব্বাস সিদ্দিকের সঙ্গে জোট করা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন তিনি।

এরপর গেরুয়া শিবিরে যোগদান করা মাত্রই প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হতে শিলিগুড়ি থেকে প্রার্থী হিসেবে উঠে এলো শংকর বাবুর নাম। দেখা গেল খোদ গুরুর বিরুদ্ধে লড়ছেন তিনি। এদিন শঙ্কর ঘোষের নাম প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা হওয়ার পরেই গুঞ্জন ওঠে রাজনৈতিক মহলে। গুরু-শিষ্যের লড়াই দেখার জন্য আপাতত উদগ্রীব রাজনৈতিক মহল।

এদিন শিলিগুড়ি বাম প্রার্থী অশোক ভট্টাচার্য জানান, “মানুষ জবাব দেবে তিনি কেন গেলেন। গিয়ে টিকিট পেলেন”। কিভাবে টিকিট পেলেন তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন অশোক ভট্টাচার্য। যদিও তিনি সাফ জানিয়েছেন, “ভোটের লড়াইটা হবে ব্যালট বক্সে”।

এদিন প্রার্থী হয়ে শংকর ঘোষ অবশ্য বলেন, “রাজনীতিতে সকলেই আমার গুরু। আমি সবার থেকেই শিখি। বিজেপি আমাকে প্রার্থী করায় আমি খুশি।” এদিন শিলিগুড়িতে পরিবর্তন হবে বলেও দাবি করেন তিনি।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.