বিধানসভা উপনির্বাচনের মুখে দিনহাটায় গেরুয়া শিবিরে বড়সড় ভাঙন!

বিধানসভা উপনির্বাচনের মুখে দিনহাটায় গেরুয়া শিবিরে বড়সড় ভাঙন!
বিধানসভা উপনির্বাচনের মুখে দিনহাটায় গেরুয়া শিবিরে বড়সড় ভাঙন! / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ আগামী ৩০ অক্টোবর রয়েছে রাজ্যের চার কেন্দ্রের উপনির্বাচন। এই বিধানসভা উপনির্বাচনের মুখে অস্বস্তিতে দিনহাটা বিজেপি। বড় ভাঙন দেখা দিল গেরুয়া শিবিরে। বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিল ২৬৩ টি পরিবার। শনিবার এই যোগদান পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

শনিবার দিনহাটা ২ নম্বর ব্লকের নয়ারহাট গোবরাছড়া গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার চাকলাটারি গ্রামে এই যোগদান সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেই পদ্মফুল ছেড়ে জোড়াফুলে যোগদান করে সেখানকার ২৬৩ টি পরিবার। বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করার এই অনুষ্ঠানে তাঁদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন দিনহাটা বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী উদয়ন গুহ।

দলবদলের এই অনুষ্ঠানে দিনহাটা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী উদয়ন গুহ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন নয়ারহাট গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মমতাজ বেগম, কোচবিহার জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ প্রাক্তন ব্লক সভাপতি মীর হুমায়ুন কবীর এবং আজিজার রহমান, আলতাব হোসেন, ডেভিড ডাক্তার, মিলন সেন প্রমুখ।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যাওয়ার হিড়িক পড়ে গিয়েছিল। তৃণমূলের সাধারণ কর্মী থেকে শুরু করে অনেক তাবড় তাবড় নেতা-মন্ত্রী বিজেপিতে যোগ দেন। কিন্তু একুশের বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গেই চিত্রটা সম্পূর্ণ পাল্টে যায়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস তৃতীয়বারের জন্য বাংলার শাসন ক্ষমতায় আসায়, বিজেপি থেকে অনেকেই তৃণমূলে যোগ দিতে শুরু করেন। শুরুটা হয়েছিল মুকুল রায়কে দিয়ে। এরপর একে একে বিজেপির অনেক বিধায়কই দল ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন। সম্প্রতি বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন বাবুল সুপ্রিয় এবং সব্যসাচী দত্তও। আর এবার দিনহাটা বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনের আগে অনেকেই বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিলেন।