বৃহস্পতিবার, ১৯ মে, ২০২২

করোনাকালে সঙ্গমে মানা! টোকিও অলিম্পিকে করোনা ঠেকাতে ভিলেজে 'অ্যান্টি সেক্স' বিছানা

০৯:৪৫ পিএম, জুলাই ১৯, ২০২১

করোনাকালে সঙ্গমে মানা! টোকিও অলিম্পিকে করোনা ঠেকাতে ভিলেজে 'অ্যান্টি সেক্স' বিছানা

করোনা আবহের মধ্যেই আগামী ২৩ জুলাই থেকে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে টোকিও অলিম্পিক ২০২১। তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে দর্শক ছাড়াই অনুষ্ঠিত হবে এবারের অলিম্পিক। পাশাপাশি করোনা ঠেকাতে অভিনব সব পন্থা অবলম্বন করেছে অলিম্পিক কর্তৃপক্ষ। তার মধ্যে অন্যতম হল, 'অ্যান্টি সেক্স বেড'! এবারের টোকিও অলিম্পিক ভিলেজে ঝড় তুলেছে ‘যৌনতা-রোধী' সেই বিছানা। বিষয়টি ঠিক কী?

এবারের অলিম্পিক ভিলেজে প্রতিযোগীদের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে 'অ্যান্টি সেক্স' বিছানা। এই বিছানাগুলি কার্ড বোর্ড দিয়ে তৈরি। ফলে একজনের বেশি ওজন বহন করতে পারবে না। একাধিক মানুষ বিছানায় উঠলে তা ভেঙে পড়তে বাধ্য। মূলত খেলোয়াড়রা যাতে সঙ্গমে লিপ্ত হতে বা ঘনিষ্ঠ হতে না পারেন ঠিক সেই কারণেই এমন বিছানা বরাদ্দ করা হয়েছে। কারণ আর কিছুই না। করোনা আবহে অ্যাথলিটরা নিজেদের মধ্যে সঙ্গম করলে তা থেকে করোনার ছড়ানোর আশঙ্কা রয়েছে। তা ঠেকাতেই এই বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

পাশাপাশি প্রতিবারের মতোই এবারও অলিম্পিক ভিলেজে অ্যাথলিটদের কন্ডোম দেওয়া হয়েছে। তবে সেগুলি তাঁরা ব্যবহার করতে পারবেন না। সঙ্গে কন্ডোম থাকলেও অলিম্পিক ভিলেজে তা ব্যবহার করা নিষিদ্ধ। বরং এইচআইভি এবং এইডস রোগ সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে ওই কন্ডোম তাঁদের দেশে নিয়ে ফিরতে হবে। জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই প্রায় ১,৬০,০০০ কন্ডোম বিতরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অলিম্পিক আয়োজকরা। ৪ টি কন্ডোম প্রস্তুতকারক সংস্থার সঙ্গে চুক্তিও করে ফেলেছেন তাঁরা।

https://twitter.com/Paulchelimo/status/1416240846039523331?s=20

অন্যদিকে, 'অ্যান্টি সেক্স' বেডের তত্ত্ব অনেক অ্যাথলিটই মানতে নারাজ। তাঁদের দাবী, বিছানাগুলি কার্ডবোর্ড দিয়ে তৈরি হলেও তা ভেঙে পড়ার সম্ভাবনা একেবারেই নেই। আবার মার্কিন স্প্রিন্টার পল চেলিমো ট্যুইটারে জানিয়েছেন, 'অ্যাথলিটদের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা এড়ানোর উদ্দেশ্যে কার্ডবোর্ডের খাট ব্যবহার হচ্ছে। এক একটা খাট ২০০ কেজি ওজন নিতে পারবে। এই বিছানাগুলি এক ব্যক্তির ওজনই বহন করতে সক্ষম। তবে এতে ডিসটেন্স রানারদের সমস্যা হবে না। কারণ আমাদের ওজন এমনিতেই কম। আমাদের ৪ জনও করতে পারবে।' সবমিলিয়ে অলিম্পিকের নতুন বিছানা ঘিরে ক্রীড়াজগতে যে বেশ শোরগোল পড়ে গিয়েছে, তা বলাই বাহুল্য!