লুঙ্গি পরেছে বলে বাংলাদেশে ৩ ছাত্রকে পরীক্ষায় বসার অনুমতি দিল না কলেজ

লুঙ্গি পরেছে বলে বাংলাদেশে ৩ ছাত্রকে পরীক্ষায় বসার অনুমতি দিল না কলেজ / প্রতীকী ছবি
লুঙ্গি পরেছে বলে বাংলাদেশে ৩ ছাত্রকে পরীক্ষায় বসার অনুমতি দিল না কলেজ / প্রতীকী ছবি

কেন লুঙ্গি পরে অনলাইন পরীক্ষা দিতে বসেছেন? এই প্রশ্ন তুলে ৩ পড়ুয়াকে পরীক্ষার বসার অনুমতিই দিল না বাংলাদেশের দিনাজপুরের এক ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ। ওই ছাত্রদের অভিযোগ, পরনে লুঙ্গি থাকায় তাঁদের পরীক্ষায় বসতে দেয়নি কলেজ কর্তৃপক্ষ। তবে কলেজের দাবী, ছাত্রদের পোশাকের জন্য নয়, বরং ওই তিনজন নিয়ম মেনে পরীক্ষা দিতে বসেননি। তাই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি ওই ছাত্রদের কলেজ থেকে বহিষ্কারও করা হয়েছে।

গত সোমবার বাংলাদেশের দিনাজপুরের ওই ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের রসায়নের পরীক্ষা ছিল৷ দুপুর ১২ঃ৩০ নাগাদ অনলাইনে পরীক্ষা শুরু হয়৷ পড়ুয়াদের অভিযোগ, ওই ৩ ছাত্রের মধ্যে একজনকে ক্যামেরা ঠিক করতে বলেন শিক্ষক। তখনই তিনি দেখেন ওই ছাত্র লুঙ্গি পরে পরীক্ষা দিতে বসেছেন। এরপরই যে অনলাইন মাধ্যমে পরীক্ষা চলছিল সেখান থেকে ছাত্রটিকে বার করে দেওয়া হয়। তার পর বাকি আরও দু’জন পড়ুয়াকেও একই কারণে বার করে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ।

পরীক্ষায় অনুমতি না মেলা তিন পড়ুয়াই জানিয়েছেন, এই ঘটনার পর তাঁরা সুপারভাইজারকে ফোন করেন। কিন্তু তিনিও কোনও সমাধান করতে পারেননি। পাশাপাশি এই অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে নিয়েছেন বাকি পরীক্ষারত ছাত্ররাও। তাঁরাও জানান, ঘটনাটি সত্যি। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে দাবী, এই অভিযোগ একেবারেই ভুল। অনেক পড়ুয়াই লুঙ্গি পরে পরীক্ষা দিয়েছেন। তাহলে কেন ওই ৩ জনকেই বের করে দেওয়া হবে? আসলে তাঁরা পরীক্ষার নিয়ম মানেননি। তাই তাঁদের বহিষ্কার করা হয়েছে।

অন্যদিকে, এদিন খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ ও কারিগরি বিভাগের একটি সেমেস্টারেরও পরীক্ষা ছিল। সেখানেও বেশ কয়েকজন পড়ুয়াকে পরীক্ষায় বসার অনুমতি দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে। এছাড়াও পরীক্ষায় নকল করার কারণে ২ পড়ুয়াকে বহিষ্কারও করা হয়েছে।