ম্যাঞ্চেস্টার টেস্ট ঘিরে নাটক! তবে কি ফের হবে খেলা? বিসিসিআই-এর ট্যুইট ঘিরে বাড়ল জল্পনা

ম্যাঞ্চেস্টার টেস্ট ঘিরে নাটক! তবে কি ফের হবে খেলা? বিসিসিআই-এর ট্যুইট ঘিরে বাড়ল জল্পনা
ম্যাঞ্চেস্টার টেস্ট ঘিরে নাটক! তবে কি ফের হবে খেলা? বিসিসিআই-এর ট্যুইট ঘিরে বাড়ল জল্পনা

করোনার কারণে বাতিল হয়ে গিয়েছে ভারত-ইংল্যান্ডের পঞ্চম তথা শেষ টেস্ট। আর এই টেস্ট ঘিরেই শুক্রবার সকাল থেকে চলল নাটকের পর নাটক। এদিন সকালে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডেরর তরফে বিবৃতি জারি করে জানানো হয়, দল নামাতে না পারার জন্য ম্যাচ ছেড়ে দিতে বাধ্য হচ্ছে ভারত। এরপরই চারদিকে শোরগোল পড়ে যায়। এই বিবৃতির বিরোধিতা করে ভারতীয় শিবির৷ তারা জানায়, ম্যাচ ছেড়ে দেওয়ার প্রশ্নই নেই বরং তারা ম্যাচ খেলতে প্রস্তুত। এরপরই নিজেদের বিবৃতি সংশোধন করে ইসিবি জানায়, কোভিডের কারণে আপাতত ম্যাঞ্চেস্টার টেস্ট বাতিল করে দেওয়া হল। তবে তখনও বিসিসিআইয়ের তরফ থেকে সরকারিভাবে কিছু জানানো হয়নি।

শুক্রবার দুপুরে আসরে নামল ভারতীয় বোর্ড। গোটা ঘটনার বিবৃতি দিয়ে তারা ব্যাখ্যা করে, দীর্ঘ আলোচনার পর ভারত ইংল্যান্ড দুই বোর্ডই এই টেস্ট বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা এবং মানসিক স্বাস্থ্যের কথা ভেবেই সঙ্গত কারণে ম্যাচ বাতিল করা হয়েছে। যদিও ভারতীয় বোর্ডের বিবৃতি থেকে এও জানা গিয়েছে, বিসিসিআইয়ের তরফে ইসিবিকে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে যাতে আগামীদিনে কোনও একটি সময় ফের এই ম্যাচ আয়োজন করা যায়। ইসিবি তাতে রাজিও হয়েছে। বিবৃতিতে ভারতীয় বোর্ড সচিত জয় শাহ জানিয়েছেন, ‘বিসিসিআই এবং ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের মধ্যেকার সুসম্পর্কের কথা মাথায় রেখেই বিসিসিআই অন্য সময় ম্যাচটি করার প্রস্তাব দিয়েছে। দুই বোর্ড মিলে আলোচনা করে আগামী দিনে কোনও সঠিক সময়ে ম্যাচটি আয়োজনের চেষ্টা করা হবে।’

ম্যাঞ্চেস্টার টেস্ট ঘিরে নাটক! তবে কি ফের হবে খেলা? বিসিসিআই-এর ট্যুইট ঘিরে বাড়ল জল্পনা
ম্যাঞ্চেস্টার টেস্ট ঘিরে নাটক! তবে কি ফের হবে খেলা? বিসিসিআই-এর ট্যুইট ঘিরে বাড়ল জল্পনা

অতএব, বিসিসিআইয়ের বিবৃতি থেকে এ কথা স্পষ্ট যে, খেলার সম্ভাবনা জিইয়ে রাখছে ভারতীয় বোর্ড। যদিও ইংল্যান্ড বোর্ডের তরফে এখনও এ বিষয়ে খোলসা করে কিছু জানানো হয়নি। তাহলে সিরিজের ভবিষ্যৎ কী? সে নিয়ে এখনও টানাপড়েন চলছে৷ তবে আপাতত মনে করা হচ্ছে ভারত-ইংল্যান্ড টেস্ট সিরিজ অসমাপ্তই রয়ে গেল। এদিকে ভারত ২-১ ম্যাচের ব্যবধানে এগিয়ে থাকলেও তাদের জয়ী ঘোষণা করা হচ্ছে না। পরবর্তীতে এই টেস্টের জন্য সময় খুঁজে বের করা হবে। ততদিন সিরিজে ভারত এগিয়ে থাকবে৷ ম্যাচটি ফের হলে তখনই সিরিজের ফয়সালা করা হবে। এদিকে, এই ম্যাচ না হওয়ায় বিপুল পরিমাণ আর্থিক ক্ষতির মুখে ইংল্যান্ড বোর্ড। ম্যাচ না হওয়ায় প্রায় ২০ মিলিয়ন ইউরো লোকসান হচ্ছে ইংল্যান্ড বোর্ডের। ভারতীয় মুদ্রায় যার অর্থমূল্য প্রায় ২০০ কোটি টাকা। তাই যেনতেন প্রকারে ম্যাচটি আয়োজন করতে চেয়েছিল ইংল্যান্ড কিন্তু এই মুহূর্তে তা সম্ভব হচ্ছে না। বরং তা স্থগিতই রয়ে গেল।

এবার প্রশ্ন উঠছে, কবে এই ম্যাচটি আবার আয়োজন করা সম্ভব? প্রথমে ঠিক হয়েছিল পঞ্চম টেস্ট বাতিল না করে হয়তো একদিন বা দু’দিন পিছিয়ে দেওয়া হবে। কিন্তু ম্যাঞ্চেস্টার টেস্ট পিছিয়ে গেলে মাঝ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হতে চলা আইপিএল আয়োজনের ক্ষেত্রে তীব্র সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে। ক্ষতি হবে লক্ষ লক্ষ টাকার। এছাড়াও আইপিএলের পরই রয়েছে টি-২০ বিশ্বকাপ। তাই এখনই বাতিল হওয়া ওই ম্যাচ আয়োজন করা সম্ভব হবে না। তবে আগামী বছর জুনে ফের সীমিত ওভারের সিরিজ খেলতে ইংল্যান্ড যাচ্ছে ভারত। সেসময় এই টেস্ট ম্যাচের আয়োজন করার সম্ভাবনা দেখা দিচ্ছে।