স্বাস্থ্য পরিষেবা সামাল দিতে বাড়ছে শয্যা, অক্সিজেনের যোগান, আশ্বাস ‘নবান্ন’-র

বাড়ছে শয্যা, অক্সিজেনের যোগান, আশ্বাস ‘নবান্ন’-র
বাড়ছে শয্যা, অক্সিজেনের যোগান, আশ্বাস ‘নবান্ন’-র

স্বাস্থ্য পরিষেবা সামাল দিতে হিমসিম খাচ্ছে সরকারি থেকে বেসরকারি হাসপাতালগুলি। এমতাবস্থায় মঙ্গলবার নবান্ন থেকে ফের আশার বানী শোনানো হল। এদিন বিকেলে স্বাস্থ্যসচিব এবং মুখ্যসচিব জেলা প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে ভারচুয়াল বৈঠক সারেন। সেখানেই রাজ্যে অক্সিজেনের কোনও সংকট নেই বলে জানিয়ে দেওয়া হয়। পাশাপাশি রাজ্যের হাসপাতালে শয্যা বাড়ানো হচ্ছে বলেও জানানো হয়।

সংকটকালীন পরিস্থিতিতে বেশ কিছু অসাধু ব্যবসায়ী অক্সিজেনের কালোবাজারি করছে। এই দুর্নীতিকে রুখতে এদিন কড়া নির্দেশ দিল নবান্ন। জেলা প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়ে বলা হয়েছে, বড় হাসপাতালগুলিতে বসানো হবে লিকুইড অক্সিজেন ট্যাংক। এতে ওই হাসপাতালগুলির বাণিজ্যিক অক্সিজেনের উপর নির্ভরতা কমবে। ফলে খোলাবাজার থেকে অক্সিজেন কম কিনতে হবে। এছাড়াও অক্সিজেন সরবরাহে এলাকাভিত্তিক নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা হয়েছে।

অন্যদিকে বলা হয়েছে, হাসপাতালে সুপার বা অধ্যক্ষরা পাইপ লাইন তৈরি করে প্রয়োজন অনুযায়ী জেলা হাসপাতালগুলিতে অক্সিজেন সরবরাহ করতে পারবে। এই অক্সিজেন সরবরাহ করার বিষয়ে যাবতীয় খরচ বহন করবে নবান্ন। আগামী ১৫ মে-র মধ্যে আরও ৪১টি হাসাপাতালে পাইপলাইন তৈরির লক্ষমাত্রা নেওয়া হয়েছে। রাজ্যে আরও ৫৫টি অক্সিজেন প্ল্যান্ট তৈরি হচ্ছে।

অন্যদিকে বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে বাড়ানো হচ্ছে শয্যা সংখ্যা। মঙ্গলবার নবান্নের তরফে জানানো হয়, অ্যাপোলো হসপিটাল রাজ্য সরকারকে আগামী কয়েক দিনের মধ্যে আরও ৩০০ টি কোভিড শয্যা বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। নারায়না গ্রুপ সল্টলেকের নেত্রালয়ের সাহায্যে শীঘ্রই আরও ৩৫ টি শয্যা বাড়ানো হল। এছাড়াও প্রতি জেলায় করোনার জন্য কন্ট্রোলরুম খুলে সেই সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য নবান্নকে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসনকে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.