ভবানীপুরে ফাঁকা বুথ নিয়ে উদ্বেগে তৃণমূল! ভোটারদের এগিয়ে আসার বার্তা ফিরহাদ-সুব্রতদের

ভবানীপুরে ফাঁকা বুথ নিয়ে উদ্বেগে তৃণমূল! ভোটারদের এগিয়ে আসার বার্তা ফিরহাদ-সুব্রতদের
ভবানীপুরে ফাঁকা বুথ নিয়ে উদ্বেগে তৃণমূল! ভোটারদের এগিয়ে আসার বার্তা ফিরহাদ-সুব্রতদের

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ আজ ভবানী পুরে উপনির্বাচন হচ্ছে। এই কেন্দ্রে তৃণমূলের প্রার্থী খোদ তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই এই নির্বাচন স্বাভাবিকভাবেই হাই-ভোল্টেজ নির্বাচন। আজ নির্বাচন হচ্ছে জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জেও। তবে, এদিন সকাল থেকেই ভবানীপুরে কম ভোট পড়েছে। কাজেই ভবানীপুরের ফাঁকা বুথ নিয়ে উদ্বেগে তৃণমূল কংগ্রেস। সকাল থেকেই এখানের একাধিক বুথ ফাঁকা। তাই এবার ভবানীপুরবাসীর কাছে ভোট চেয়ে ময়দানে নামলেন তৃণমূল নেতারা। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভোটদানের আর্জি জানালেন ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়।

এদিন রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম টুইটারে লেখেন, ভবানীপুরে উন্নয়নের স্বার্থে সবাই ভোট দিতে আসুন। অন্যদিকে, সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের টুইট, ‘আজ ভবানীপুর-সহ বাংলার তিন কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ। আমাদের ভোটারদের উদ্বুদ্ধ করতে হবে ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জয়ী করতে হবে।’

জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টা পর্যন্ত ভবানীপুরে ভোটের যে শতাংশ, তা মাত্র ৭.৫৭ শতাংশ। ভোটদানের এই হার যথেষ্টই খারাপ। প্রথমে মনে করা হয়েছিল, আবহাওয়ার কারণে হয়তো ভোটাদের ভোটকেন্দ্রমুখী করতে সমস্যা হবে। কিন্তু বৃহস্পতিবার দেখা গেল, রোদ ঝলমলে সকালেও ভোটের লাইনে দাঁড়াতে ভোটারদের মধ্যে উৎসাহের যথেষ্ট অভাব রয়েছে। খাস কলকাতায় এমনিতেই ভোটের হার তুলনামূলক কম পড়ে। কিন্তু তাও এতটা কম কেন, তা নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে বিভিন্ন মহলে। পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে, রাজ্যের দুই মন্ত্রীকে টুইট করে ভোটদাতাদের ভোটকেন্দ্রমুখী করতে হচ্ছে, তাও আবার ভোটের দিন।

এদিকে, রাজ্যের দুই মন্ত্রীর টুইট প্রসঙ্গে বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘খুব ভাল। আমিও সেটাই চাই। কিন্তু যারা টুইট করছেন, তাঁরা জানেন কেন ভোট কম পড়ছে। তাঁদের পোষা লোকজনকে তো রাস্তায় দেখতে পাচ্ছি না! ওদের কি বিল্ডিংয়ে ঢুকিয়ে দিয়েছে?’