দেশের মধ্যে এই শহর প্রথম সম্পন্ন করল ১০০ শতাংশ করোনার টিকাকরণ!

দেশের মধ্যে এই শহর প্রথম সম্পন্ন করল ১০০ শতাংশ করোনার টিকাকরণ!
দেশের মধ্যে এই শহর প্রথম সম্পন্ন করল ১০০ শতাংশ করোনার টিকাকরণ! / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রভাব এখন অনেকটাই কম। নিয়ন্ত্রণে দেশের করোনা সংক্রমণ। আগের তুলনায় কমেছে মৃত্যুও। সুস্থতার হার অনেক বেশি। তবে এর মধ্যেই আবার চলতি মাসেই দেশে করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ারও ইঙ্গিত দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তাই স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের পাশাপাশি কেন্দ্র সরকার বারবার টিকাকরণের উপর জোর দিচ্ছেন করোনার মোকাবিলায়। দেশে দ্রুত গতিতে টিকাকরণ সম্পন্ন করার কথা বারবার বলছেন চিকিৎসকেরা। দেশব্যাপী তাই জোর কদমে চলছে করোনার টিকাকরণ অভিযান।

এই পরিস্থিতিতে দেশের মধ্যে নজির সৃষ্টি করল ওড়িশার রাজধানী ভুবনেশ্বর। এই শহরে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে টিকাকরণ ১০০ শতাংশ সম্পূর্ণ হয়েছে বলেই জানা গিয়েছে। দেশে এই প্রথম কোনও শহর এই কৃতিত্ব অর্জন করল। শুধু তাই নয়, ওড়িশা শহরে এক লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিকদেরও করোনার প্রথম ডোজের টিকা দেওয়া হয়ে গিয়েছে।

এই মুহূর্তে পড়শি রাজ্য ভুবনেশ্বরের এমন নজির স্বাভাবিকভাবেই অন্যান্য রাজ্যকে অনুপ্রেরণা দিচ্ছে। এই শহরের সব মানুষকে টিকা দেওয়া হয়ে গিয়েছে বলেই প্রশাসন সূত্রেও দাবি করা হয়েছে। ভুবনেশ্বর মিউসিপ্যাল কর্পোরেশনের দক্ষিণ-পূর্ব জোনের ডেপুটি কমিশনার অংশুমান রথ জানিয়েছেন, কোভিডের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে জনসংখ্যার ১০০ শতাংশ টিকাকরণ সম্পূর্ণ হয়েছে ইতিমধ্যেই। পরিযায়ী শ্রমিকদেরও টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে।

অংশুমান রথ আরও জানিয়েছেন যে, ভুবনেশ্বর মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন একটি লক্ষ্যমাত্রা স্থির করেছিল। যেখানে ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে ১০০ শতাংশ টিকাকরণের চ্যালেঞ্জ নেওয়া হয়েছিল। পাশাপাশি এই সময়ের মধ্যে ৯ লক্ষ ৭ হাজার জনকে করোনার টিকা দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, ভুবনেশ্বরে প্রায় ৩১ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছেন। প্রথম সারির স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছেন ৩৩ হাজার। আর ১৮-৪৪ বছরের মধ্যে মানুষের সংখ্যা ৫ লক্ষ ১৭ হাজার। আর ৪৫ বছরের উপরে রয়েছেন প্রায় ৩ লক্ষ ২০ হাজার মানুষ। পুরসভার থেকে নেওয়া করোনার টিকাকরণ অভিযানে এই সমস্ত মানুষকে টিকা দেওয়া হয়েছে বলেও দাবি করা হয়েছে।

এদিকে, টিকাকরণের গতি ঠিক রাখতে ৫৫টি অতিরিক্ত টিকাকরণ কেন্দ্র তৈরি করা হয়েছে ভুবনেশ্বর জুড়ে। এর মধ্যে ৩০টি কেন্দ্র প্রাইমারি হেলথ সেন্টার এবং কমিউনিটি সেন্টারকে টিকাকেন্দ্র পরিণত করা হয়েছিল। ৩০ জুলাই পর্যন্ত ১৮ লক্ষ ৩৫ হাজার ডোজ দেওয়া হয়েছিল। এর থেকে এটা পরিষ্কার হয় যে, ৯ লক্ষ ৭ হাজার জনসংখ্যার ভুবনেশ্বরে সবাই টিকা পেয়েছেন। সবাই টিকার দ্বিতীয় ডোজও নিয়েছেন।