জল্পনার অবসান! গুজরাটের নয়া মুখ্যমন্ত্রী ভূপেন্দ্রভাই প্যাটেল

জল্পনার অবসান! গুজরাটের নয়া মুখ্যমন্ত্রী ভূপেন্দ্রভাই প্যাটেল
জল্পনার অবসান! গুজরাটের নয়া মুখ্যমন্ত্রী ভূপেন্দ্রভাই প্যাটেল / ছবি সৌজন্যে- এএনআই

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ শেষপর্যন্ত সব জল্পনার অবসান ঘটল। গুজরাটে বিজয় রূপানির জায়গায় নয়া মুখ্যমন্ত্রী হলেন ভূপেন্দ্রভাই প্যাটেল। এদিন নয়া মুখ্যমন্ত্রী কে হবেন? এই বিষয়ে বৈঠকে বসে বিজেপির পরিষদীয় দল। সেখানেই ভূপেন্দ্রভাই প্যাটেলের নাম চূড়ান্ত হয়।

এদিন বিজেপির বিধায়কদের নিয়ে পরিষদীয় দলের বৈঠকে ভূপেন্দ্রভাই প্যাটেলের নাম প্রস্তাব করেন খোদ সদ্য ইস্তফা দেওয়া প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানি নিজেই। আর তাঁর এই প্রস্তাবেই সকলে সম্মতি জাহির করেন। সেই জন্যই গুজরাটের নয়া মুখ্যমন্ত্রীর পদে বসতে চলেছেন ভূপেন্দ্রভাই প্যাটেলই।

২০১৭ সালে বিধানসভা নির্বাচনে ঘাটলোডিয়া বিধানসভা কেন্দ্র থেকে ১ লক্ষ ১৭ হাজার ভোটে জয়লাভ করেছিলেন। যা ওই ভোটে সর্বাধিক মার্জিন ছিল। বর্তমান অবস্থায় আগামী বছরই গুজরাটে বিধানসভা নির্বাচন। তবে, তার আগে বিজয় রূপানির জায়গায় এই পাতিদার নেতার উপরই আস্থা রাখল বিজেপি। শোনা যাচ্ছে, তিনি আবার আনন্দীবেন প্যাটেলেরও ঘনিষ্ঠ।

উল্লেখ্য, শনিবার হঠাৎই আচমকা সাংবাদিক বৈঠক করে মুখ্যমন্ত্রিত্ব ছাড়ার কথা জানান বিজয় রূপানি। দল তাঁকে সংগঠনে ফেরার নির্দেশ দেওয়াতেই এই সিদ্ধান্ত, সেকথাও জানিয়েছেন বিজয় রূপানি। ইস্তফার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে তিনি বলেন, ‘দল আমাকে যা দায়িত্ব দিয়েছে অনুগত সৈনিক হিসাবে আমি তা পালন করেছি। আমি গুজরাটের জনতাকে ধন্যবাদ জানাতে চাই গুজরাটে গত পাঁচ বছরে যে নির্বাচন বা উপনির্বাচন হয়েছে, সবকিছুতেই আমাদের জেতানোর জন্য। আমি এবার সংগঠনের দায়িত্ব সামলাব।’

কিন্তু কেন আচমকাই ইস্তফার সিদ্ধান্ত? তা নিয়ে অবশ্য মুখ খুলতে চাননি রূপানি। তাঁর দাবি, বিজেপিতে এই ধরনের পরিবর্তন অস্বাভাবিক কিছু নয়। তিনি আগামী দিনেও বিজেপি নেতৃত্বে দলের অনুগত সৈনিক হিসাবেই কাজ করবেন।

কিন্তু রূপানির মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফার পরেই জল্পনা শুরু হয়ে যায় যে, তাহলে গুজরাটের পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রীর আসনে কাকে দেখা যাবে? এই দৌড়ে এগিয়ে ছিলেন বিদায়ী উপমুখ্যমন্ত্রী নীতীন প্যাটেল কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পুরুষোত্তম রুপালা এবং মনসুখ মাণ্ডব্য। এছাড়াও ছিলেন বিদায়ী কৃষিমন্ত্রী আর সি ফালড়ু, বিজেপি-র রাজ্য সভাপতি সি আর পাটিলও। কিন্তু এঁদের সবাইকে পিছনে ফেলে মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পেলেন পতিদার নেতা ভূপেন্দ্রভাই প্যাটেল। যা এই মুহূর্তে গুজরাটে বিজেপির বড় চমকও বলা যায়।