কৃষকদের বিক্ষোভের মাঝেই বড় সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের! রবি শস্যের সহায়ক মূল্য বাড়াল মোদী সরকার

কৃষকদের বিক্ষোভের মাঝেই বড় সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের! রবি শস্যের সহায়ক মূল্য বাড়াল মোদী সরকার
কৃষকদের বিক্ষোভের মাঝেই বড় সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের! রবি শস্যের সহায়ক মূল্য বাড়াল মোদী সরকার

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ কেন্দ্রের নয়া কৃষি আইন নিয়ে কৃষকদের বিক্ষোভ এখনও অব্যাহত। এবার এই কৃষক বিক্ষোভের মাঝেই বড় সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্রের মোদী সরকার। দেশের একাধিক রাজ্যে নয়া কৃষি আইন নিয়ে বিক্ষোভের মাঝেই একাধিক রবিশস্যের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্রের মোদী সরকার।

বুধবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে গম, সর্ষের বীজ, বার্লি-সহ কয়েকটি ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। কেন্দ্রের অর্থ বিষয়ক ক্যাবিনেট কমিটি তাতে ছাড়ও দিয়েছে। জানা গিয়েছে, ২০২২-২৩ বিপণন মরশুম থেকে কেন্দ্রের এই নয়া মূল্যবিধি চালু হবে।

উল্লেখ্য, একাধিক পণ্যে ন্যূনতম সহায়ক মূল্য ভালো আকারে বাড়ানো হলেও, গমের ক্ষেত্রে তা বেড়েছে মাত্র ৪০ টাকা। এবার থেকে কুইন্টাল প্রতি গম ন্যূনতম ২০১৫ টাকা দরে কিনবে সরকার। যা আগের বছরের তুলনায় বেড়েছে মাত্র ২ শতাংশ। ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বেড়েছে মুসুর ডাল ও সরষেরও। দুটি রবিশস্যের ক্ষেত্রে কুইন্ট্যাল প্রতি ৪০০ টাকা সহায়ক মূল্য বাড়িয়েছে কেন্দ্র। গত বছরের থেকে এই বৃদ্ধি কয়েকগুন বেশি। বার্লির ক্ষেত্রে এমএসপি বেড়েছে ৩৫ টাকা। কাঁচা ছোলায় ১৩০ টাকা বাড়ানো হয়েছে ন্যূনতম সহায়ক মূল্য। এদিকে, গমের ক্ষেত্রে সহায়ক মূল্য নিয়ে ইতিমধ্যেই বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং কেন্দ্রের এই মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্তকে দুঃখজনক বলে বর্ণনা করেছেন।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত বছরের ২৬ নভেম্বর থেকে দিল্লির রাজপথে আন্দোলন চালাচ্ছেন দেশের কৃষকরা। তাঁদের অন্যতম প্রধান দুই দাবি হল, কৃষি আইন প্রত্যাহার ও শস্যের ন্যূনতম সহায়ক মূল্যকে আইনে পরিণত করা। গত বছর রাজ্যসভায় কৃষি বিল পাসের সময়ই গম-সহ ৬টি রবিশস্যের নূন্যতম সহায়ক মূল্য বেঁধে দেয় কেন্দ্র। এবার কৃষক আন্দোলনের মাঝে কেন্দ্রের এমএসপি বৃদ্ধির ঘোষণাকে ক্ষতে প্রলেপ দেওয়া বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একটা বড় অংশ।