বিহার পুলিশের DSP পদে প্রথম কোনও মুসলিম মহিলা! নজির গড়লেন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের কন্যা রাজিয়া

বিহার পুলিশের DSP পদে প্রথম কোনও মুসলিম মহিলা! নজির গড়লেন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের কন্যা রাজিয়া
বিহার পুলিশের DSP পদে প্রথম কোনও মুসলিম মহিলা! নজির গড়লেন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের কন্যা রাজিয়া

ইতিহাসে প্রথম! বিহারের ডেপুটি সুপারিন্টেন্ডেন্ট অফ পুলিস (DSP) পদে বসলেন সংখ্যালঘু সম্প্রদায় থেকে উঠে আসা ২৭ বছরের রাজিয়া। তিনিই প্রথম মুসলিম কন্যা যিনি এই পদে বসলেন। তাঁর এই কীর্তিতে সৃষ্টি হল এক নজিরের। তাঁর কৃতিত্বে গর্বিত হল সংখ্যালঘুরাও।

বিহারের গোপালগঞ্জ জেলার হাতুয়া এলাকার বাসিন্দা রাজিয়া সুলতান। পরিবারে ছ’বোন এবং এক ভাইয়ের মধ্যে সবচেয়ে ছোট। দাদা উত্তরপ্রদেশে একটি বেসরকারি সংস্থায় বর্তমানে চাকুরিরত। দিদিদের প্রত্যেকেরই বিয়ে হয়ে গিয়েছে। রাজিয়া ঝাড়খণ্ডের বোকারো থেকে বিদ্যালয়ের পাঠ শেষ করে বর্তমানে বিহার সরকারের বিদ্যুৎ দফতরের সহকারি ইঞ্জিনিয়ার পদে চাকরি করতেন। তবে চিরকালই স্বপ্ন ছিল, পাবলিক সার্ভিস কমিশন পরীক্ষা দিয়ে কোনও উচ্চপদস্ত চাকরি করার। বিশেষ করে ডিএসপি পদে চাকরি পাওয়াই ছিল তার লক্ষ্য।

সেই লক্ষ্যপূরণেই অর্জুনের চোখ রেখে এগিয়ে গিয়েছিলেন রাজিয়া। সফলও হয়েছেন। সম্প্রতি বিহার পাবলিক সার্ভিস কমিশন পরীক্ষা দিয়ে পাশও করে যান তিনি। এরপর ডিএসপি পদের জন্য ৪০ জনকে বেছে নেওয়া হয়৷ সেখানে সবাইকে পিছনে ফেলে শীর্ষ স্থান অধিকার করে এই পদে নির্বাচিত হন তিনি।

রাজিয়ার কথায়, “হিজাব বা বোরখা পরা মানেই আটকে থাকা নয়৷ মন থেকে কোনও কাজ করতে চাইলে আল্লাহ তাকে লড়াই করা ও জয়লাভের শক্তি দেন।” সেই মানসিক শক্তির জোরেই আজ তিনি বিহার পুলিশের এক উচ্চপদে আসীন। নিজের দায়িত্ব প্রসঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, “অনেক ক্ষেত্রেই দেখা গিয়েছে অন্যায় করেও বহু অপরাধী সঠিক সাজা পান না৷ অনেক মহিলারাই অন্যায়ের শিকার হয়ে সঠিক বিচার পায় না। তাদের পাশে দাঁড়ানোই আমার লক্ষ্য।”

পাশাপাশি, এখনও বহু মুসলিম পরিবার মেয়েরা পড়াশোনা বা উচ্চশিক্ষা লাভ থেকে বঞ্চিত থাকে। সেদিকেও রাজিয়ার কড়া নজর থাকবে বলে জানিয়েছেন ইতিহাসে নাম লেখানো এই কন্যে। উল্লেখ্য, সম্প্রতিই কোভিড থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন রাজিয়া। তারপরই টিকাদান সম্পর্কিত গুজব রটানো থেকে মুসলিম সম্প্রদায়কে বিরত থাকারও অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি৷ করোনা মোকাবিলায় টিকাকরণের গুরুত্ব সম্পর্কেও সচেতনতা বাড়াতে দেখা গিয়েছে রাজিয়াকে।