সোমবার, ১৫ আগস্ট, ২০২২

৫০ হাজারেরও বেশি শূন্যপদে শিক্ষক-প্রধান শিক্ষক নিয়োগ! জানুন বিস্তারিত খুঁটিনাটি

০২:৩৭ পিএম, আগস্ট ২৫, ২০২১

৫০ হাজারেরও বেশি শূন্যপদে শিক্ষক-প্রধান শিক্ষক নিয়োগ! জানুন বিস্তারিত খুঁটিনাটি

পড়শি রাজ্য বিহারের মানুষদের কাছে সরকারি চাকরির নতুন এক দরজা খুলে গেল। সম্প্রতি প্রাথমিক ও উচ্চতর মাধ্যমিকে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করল বিহার সরকার। ১৯৯৪ সালের পরে লোকসেবা আয়োগের মাধ্যমে বিহারে সরকারি স্কুলে শিক্ষক নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত সরকারের। শিক্ষক নিয়োগের জন্য ইতিমধ্যে একটি প্যানেলও প্রস্তুত করা হয়েছে। আশার খবর এটাই যে, শিক্ষক নিয়োগের বিষয়ের দায়িত্বে থাকবেন শিক্ষকেরাই।

আসুন এবার একঝলকে দেখে নেওয়া যাক আবেদনের বিস্তারিত খুঁটিনাটি...

শূন্যপদ: প্রায় ৫০ হাজারেরও বেশি শূন্যপদে শিক্ষক নিয়োগ হবে। এর মধ্যে ৪৫,৫০০ পদে শিক্ষক এবং ৫,৩০০ পদে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ করা হবে৷

শিক্ষাগত ও অন্যান্য যোগ্যতা: আবেদনকারীকে যেকোনও মান্যতাপ্রাপ্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ৫০ শতাংশ নম্বর নিয়ে স্নাতক পাশ করতে হবে৷ বিভিন্ন ধরনের অনগ্রসর শ্রেণির মানুষ ও মহিলাদের জন্য ৫ শতাংশ ছাড় দেওয়া হবে। ডিএলএড, বিটিবিএড, বিএএড বিএলএডের ডিগ্রি আবশ্যক৷ একই সঙ্গে ২০১২ বা তারপরে শিক্ষক পাত্রতা পাশ করাটা বাঞ্ছনীয়। পাশাপাশি পঞ্চায়েত প্রারম্ভিক শিক্ষক, নগর প্রারম্ভিক শিক্ষক হিসাবে কমপক্ষে আট বছরের কাজ করার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

প্রধান শিক্ষক পদে আবেদনের জন্য সিবিএসসি, আইসিএসসি বা বিহার বিদ্যালয়ের সমিতির স্কুলে পড়ানোর অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। তবে শর্ত এটাই যে স্কুলগুলি উচ্চমাধ্যমিক হতে হবে। এছাড়াও ১০ বছর শিক্ষকতার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে৷ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষক হিসাবে কমপক্ষে ৮ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে৷

বয়সসীমা: আবেদনকারীর সর্বনিম্ন বয়স ৩১ বছর ও সর্বাধিক বয়স ৪৭ বছর হতে হবে।

নিয়োগ প্রক্রিয়া: অধ্যাপক নিয়োগের জন্য লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হবে। প্রত্যেক আবেদনকারীকে ১৫০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা দিতে হবে৷ ভুল উত্তর প্রতি ০.২৫ করে নম্বর কাটা হবে। সেই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে আপনাকে ডাকা হবে।