ভবানীপুরের উপনির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে অবশেষে প্রার্থী দিল বিজেপি! কে? জেনে নিন বিস্তারিত

ভবানীপুরের উপনির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে অবশেষে প্রার্থী দিল বিজেপি! কে? জেনে নিন বিস্তারিত
ভবানীপুরের উপনির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে অবশেষে প্রার্থী দিল বিজেপি! কে? জেনে নিন বিস্তারিত / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ চলতি মাসের ৩০ তারিখ ভবানীপুর কেন্দ্রে উপনির্বাচন রয়েছে। এই কেন্দ্রের তৃণমূলের প্রার্থী খোদ তৃণমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কাজেই এটাই এখন বঙ্গ রাজনীতির সবথেকে আলোচিত বিষয়। আজই মনোনয়ন জমা দিচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বাংলার একুশের নির্বাচনে নন্দীগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্রে বিজেপির শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দল তৃতীয়বারের জন্য বিপুল সংখ্যা গরিষ্ঠতায় জিতলেও, এই কেন্দ্রে পরাজিত হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাও তিনি মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসেছেন। তবে, এই মুহূর্তে তাঁকে নিজের মুখ্যমন্ত্রীর আসন ধরে রাখতে হলে, এই ভবানীপুর কেন্দ্রের উপনির্বাচনে জিতে আসতে হবে।

তবে, রাজনৈতিক মহলের একাংশের মতে, এই আসনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জয় একপ্রকার নিশ্চিত। উল্টে এই আসনে বিজেপির লড়াই কার্যত সম্মানের লড়াই হতে চলেছে। ভবানীপুরের উপনির্বাচনে তাই সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়তে চাইছে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব। প্রার্থী নিয়ে বেশকিছু দিন ধরে টানাপোড়েন চলার পর অবশেষে ভবানীপুর কেন্দ্রে প্রার্থী ঘোষণা করল রাজ্য বিজেপি। আইনজীবী প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়ালকে প্রার্থী করল গেরুয়া শিবির।

প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল এই মুহূর্তে রাজ্য বিজেপিতে নানা গুরুত্বপূর্ণ পদে রয়েছেন। উল্লেখ্য, প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল রাজ্যে ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় আইনজীবী হিসেবে লড়ছেন। এবার তাঁকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ভবানীপুর কেন্দ্রে প্রার্থী ঘোষণা করল। একুশের বিধানসভা নির্বাচনে এন্টালি থেকে বিজেপি প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। কিন্তু পরাজিত হন। দুঁদে আইনজীবী হিসেবেও পরিচিত তিনি। অতীতে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ মামলায় আইনজীবী হিসেবে লড়াই করেছেন। ওই মামলাগুলি রাজনৈতিকভাবে বেশ গুরুত্বপূর্ণ ছিল। এদিকে, রাজ্যে ভোট পরবর্তী হিংসা মামলা, যেগুলিতে সিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কলকাতা হাইকোর্টের পক্ষ থেকে, তার আইনজীবী হিসেবে লড়াই করেছেন।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, দুদিন আগেই বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ দাবি করেছিলেন, এই কেন্দ্রের নির্বাচনে বিজেপি সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়তে চাইছে। বিজেপির রাজ্য সভাপতি মুখে যাই বলুন না কেন, বাস্তবে ভবানীপুর কেন্দ্রে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিপক্ষ হিসেবে প্রার্থী খুঁজতে গিয়ে কার্যত নাজেহাল অবস্থা হয়েছিল রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বের। এই কেন্দ্রে বিজেপির প্রার্থী কে হবেন? তা নিয়ে টানাপোড়েন অব্যাহত ছিল বিগত কয়েকদিন ধরেই। যদিও কয়েকদিন আগেই ৬ জনের নামের একটি তালিকা পাঠানো হয়েছিল দিল্লিতে। তাঁদের মধ্যেই একটি নামে শিলমোহর দেবে শীর্ষ নেতৃত্ব। এমনটাই জানা গিয়েছিল।

রাজ্য বিজেপি ভবানীপুরের প্রার্থী হিসেবে যাঁদের বেছে নিয়েছিলেন, সেই তালিকায় ছিলেন অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষ, তথাগত রায়, অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়, আইনজীবী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল, প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায় ও বিশ্বজিৎ সরকার। অবশেষে মমতার প্রতিপক্ষ হিসেবে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব আইনজীবী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল-এর উপরেই শেষপর্যন্ত ভরসা করল।

অন্যদিকে, ভবানীপুরের উপনির্বাচনের জন্য ইতিমধ্যেই নির্বাচনী কৌশল ঠিক করে ফেলেছে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব। নাম ঘোষণার আগেই, এই কেন্দ্রের উপনির্বাচনে পর্যবেক্ষক হিসেবে ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিংকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে দলের তরফে। পাশাপাশি তাঁর সহযোগী হিসেবে থাকছেন আরও দুই সাংসদ সৌমিত্র খাঁ এবং জ্যোতির্ময় সিং মাহাতো৷