বাংলায় প্রথম দফার ভোটের আগে, আরও ৪ টি আসনে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ বিজেপির

বাংলায় প্রথম দফার ভোটের আগে, আরও ৪ টি আসনে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ বিজেপির
বাংলায় প্রথম দফার ভোটের আগে, আরও ৪ টি আসনে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ বিজেপির / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ বাংলায় বিধানসভা নির্বাচন শুরু হতে মাত্র বাকি মাত্র আর কয়েকটা দিন। এবারের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে চলেছে ৮ দফায়। তৃণমূল অনেক আগেই একবারে ২৯৪ টি আসনে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেছে। অন্যদিকে বিজেপি এই রাস্তায় হাঁটছে না। দিল্লিতে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনা, একের পর এক বৈঠক শেষে, ঘোষণা করছে তাঁদের প্রার্থী তালিকা। বিজেপি নির্বাচনের জন্য দফায় দফায় প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করছে। প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করা নিয়ে বিজেপি ধীরে চলো নীতি গ্রহণ করেছে।

প্রথমে দুই দফার এবং সম্প্রতি তৃতীয় এবং চতুর্থ দফার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করা হয়েছে। তৃতীয় ও চতুর্থ দফার মোট ৬৩ টি আসনের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের তৃতীয় পর্বের জন্য ২৭ ও চতুর্থ পর্বের জন্য ৩৬ জন প্রার্থীর নামের তালিকা অনুমোদন করা হয়েছে। চার দফায় ১২২ টি আসনের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেছে বিজেপি আগেই।

আর এবার, প্রথম দফার ভোটের আগে তৃতীয় দফার আরও ৪ টি আসনে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করল বিজেপি। এর মধ্যে উলুবেড়িয়া দক্ষিণ আসনে রয়েছেন আরও এক তারকা প্রার্থী। উলুবেড়িয়া দক্ষিণ আসনে প্রার্থী হয়েছেন অভিনেত্রী পাপিয়া অধিকারী। অন্যান্য আসনে প্রার্থী হয়েছেন, বারুইপুর পূর্বে চন্দন মণ্ডল, ফলতায় বিধান পারুই এবং জগৎবল্লভপুরে প্রার্থী করা হয়েছে অনুপম ঘোষকে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এবারের বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী বাছাই একটা বড় ইস্যু এই মুহূর্তে। যে সমস্যা আগেই দেখা দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের অন্দরে। তৃণমূলের পর বাংলার বিধানসভা নির্বাচনের প্রার্থী তালিকা নিয়ে ক্ষোভ রাজ্য বিজেপির অন্দরেও। অথচ এই প্রার্থী তালিকাকে কেন্দ্র করে যখন তৃণমূল কংগ্রেস শিবিরে অশান্তি তীব্র হয়ে উঠেছিল, দলে দলে বিক্ষুব্ধ নেতা-নেত্রীরা দল ছেড়ে অন্য দলে যোগ দিচ্ছিলেন, ঠিক তখনই বিজেপির রাজ্য নেতৃত্ব এ বিষয়ে কথায় কথায় কটাক্ষ করছিল তৃণমূল কংগ্রেসকে। এবার সেটাই বুমেরাং হয়ে গেছে তাঁদের জন্য।

আসন্ন নির্বাচনের তৃতীয় এবং চতুর্থ দফার প্রার্থী তালিকাকে কেন্দ্র করে চূড়ান্ত অশান্তি শুরু হয়েছে জেলায় জেলায়। কলকাতা থেকে শুরু করে জেলায় বিক্ষোভ বিজেপি কর্মী সমর্থকদের। সম্প্রতি ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হয় বিজেপির হেস্টিংস পার্টি অফিসের সামনে। তৃতীয় এবং চতুর্থ দফার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হতেই, দিকে দিকে বিক্ষোভের ঝড় উঠেছে! কোথাও পার্টি অফিসে ঝোলানো হয় তালা, কোথাও তৃণমূল থেকে আসা নেতাকে দল প্রার্থী করায়, প্রতিবাদে পোস্টার দিয়েছেন বিজেপি কর্মী সমর্থকরা।

এই বিক্ষোভের কারণে পূর্ব নিরধারিত সূচী বদল করে সোমবারই ফের কলকাতায় ফিরে আসতে হয় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে। এরপর শহরের পাঁচতারা হোটেলে, জেপি নাড্ডা এবং দলের রাজ্য নেতৃত্বদের সঙ্গে গভীর রাত পর্যন্ত বৈঠক করেন। গত রবিবার একাধিক জেলাতে প্রার্থী তালিকা নিয়ে অসন্তোষ শুরু হলেও, সোমবার প্রার্থী তালিকা নিয়ে এই বিক্ষোভ চরম আকার ধারণ করে। এদিন কলকাতার হেস্টিংসে বিজেপির কার্যালয়ে সামনে দফায় দফায় বিক্ষোভ দেখান বিক্ষুদ্ধ কর্মী-সমর্থকরা। সূত্রের খবর, উদয়নারায়ণপুর, পাঁচলা, রায়দিঘির বিধানসভা কেন্দ্রে প্রার্থী বদলের দাবিতে সেখানকার বিজেপি কর্মীরা দফায় দফায় বিক্ষোভ দেখান।

এই প্রার্থী অসন্তোষকে কেন্দ্র করেই মূলত বৈঠক হয় বিজেপির রাজ্য নেতৃত্বের সঙ্গে অমিত শাহ এবং জেপি নাড্ডার। সূত্রের খবর, এই ঘটনায় চিন্তিত অমিত শাহ, জেপি নাড্ডারা। তাঁরা দলীয় নেতাদের কথা শুনেছেন, পাশাপাশি প্রার্থীদের সঙ্গে কথা বলে সমস্যা মেটানোর পরামর্শও দিয়েছেন। এই উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে সমস্যা মেটানোর সময়ও বেঁধে দিয়েছেন শাহ। এদিকে প্রার্থী ক্ষোভের মাঝেই দিল্লিতে আজ প্রার্থী তালিকা নিয়ে বৈঠক হয় কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে রাজ্য বিজেপি। ছিলেন দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়সহ প্রথম সারির নেতারা।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.