চেষ্টা করেও, শেষরক্ষা হল না! অবশেষে গলসি থেকে গ্রেফতার কোকেনকাণ্ডে অভিযুক্ত বিজেপি নেতা রাকেশ সিং

চেষ্টা করেও, শেষরক্ষা হল না! অবশেষে গলসি থেকে গ্রেফতার কোকেনকাণ্ডে অভিযুক্ত বিজেপি নেতা রাকেশ সিং
চেষ্টা করেও, শেষরক্ষা হল না! অবশেষে গলসি থেকে গ্রেফতার কোকেনকাণ্ডে অভিযুক্ত বিজেপি নেতা রাকেশ সিং / ছবি সৌজন্যে- Facebook Post By @bjprsingh & pamela.goswami.5

বংনিউজ২৪x৭ডিজিটাল ডেস্কঃ দীর্ঘ কয়েক ঘণ্টা টানাপড়েনের পর, অবশেষে গলসি থেকে গ্রেফতার হলেন কোকেনকাণ্ডে অভিযুক্ত বিজেপি নেতা রাকেশ সিং। জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই গলসির উদ্দেশে রওনা দিয়েছে কলকাতা পুলিশের আধিকারিকের একটি দল। এই মুহূর্তে গলসি থানায় আটকে রাখা হয়েছে রাকেশ সিংকে। কলকাতা পুলিশের আধিকারিকরা রাকেশকে তাঁদের সঙ্গে নিয়ে ফিরবেন।

উল্লেখ্য, কোকেনকাণ্ডে আজ সকাল থেকেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে অরফনগঞ্জ। আজ লালবাজারে হাজিরা দেওয়ার কথা থাকলেও, তিনি যাননি। উল্টে এই হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ প্রত্যাহার করে নেওয়ার আবেদন জানান কলকাতা হাইকোর্টে। যদিও সেই আবেদন নাকচ হয়ে যায়। সম্ভবত এর পরেই দিল্লি যাওয়ার নাম করে, পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছিলেন অভিযুক্ত বিজেপি নেতা রাকেশ সিং। তেমনটাই পুলিশ মহলের প্রাথমিক ধারণা।

এদিকে হাইকোর্টে রাকেশের আবেদনের পরেই, পুলিশ আধিকারিকরা বুঝে গিয়েছিলেন যে, রাকেশ সিং-এর নাগাল পাওয়া খুব একটা সহজ কাজ হবে না। তাই আচমকাই আজ দুপুরে রাকেশ সিং-এর বাড়িতে হাজির হয় কলকাতা পুলিশের বিশাল বাহিনী। কিন্তু তাঁদের ঢুকতে বাধা দেওয়া হয়। প্রথমে তাঁদের ঢুকতে বাধা দেয় সিআইএসএফ। এরপর রাকেশ সিং-এর পুত্র আসরে নামেন। ক্রমাগত পুলিশের আধিকারিকদের বাধা দিতে থাকেন। তাঁর বক্তব্য ছিল, পুলিশের কাছে কোনও সার্চ ওয়ারেন্ট বা যথাযথ কোনও নথি ছিল না। এই নিয়ে দুই তরফে শুরু হয় বচসা। স্বাভাবিকভাবেই এর জেরে পরিস্থিতি উতপ্ত হয়ে ওঠে।

যদিও বিকেল ৫ টা নাগাদ, পুলিশ আধিকারিকরা বাড়ির ভিতরে প্রবেশ করতে সমর্থ হন। তিনঘণ্টা ধরে তল্লাশি চলে। সন্ধের দিকে পুলিশের কাজে ক্রমাগত বাধা দেওয়ার জন্য রাকেশ সিং-এর দুই ছেলে সাহেব এবং শুভমকে আটক করে লালবাজারে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে তাঁদেরও গ্রেফতার করা হয়। এরপরই জানা যায় যে, গলসিতে আটক করা হয়েছে অভিযুক্ত নেতাকে। এই গ্রেফতারির খবর পাওয়া মাত্রই গলসির উদ্দেশে রওনা দেয় কলকাতা পুলিশের আধিকারিকদের একটি দল।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই কোকেনকাণ্ডে বিজেপি নেতা রাকেশ সিং-এর নাম জড়ায়। কোকেনকাণ্ডে ধৃত বিজেপি নেত্রী পামেলা গোস্বামী সংবাদমাধ্যমের সামনে রাকেশের বিরুদ্ধে চক্রান্তের অভিযোগ করেছিলেন। এরপর সোমবার কলকাতা পুলিশ কমিশনারকে মেল করেন বিজেপি নেতা রাকেশ সিং। তিনি রীতিমতো হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন। কলকাতা পুলিশ ও পামেলার বিরুদ্ধে মানহানির মামলার হুঁশিয়ারিও দিয়েছিলেন।