নবান্নের বিজেপির প্রতিনিধি দল, বৈঠক মুখ্য সচিবের সঙ্গে

নবান্নের বিজেপির প্রতিনিধি দল, বৈঠক মুখ্য সচিবের সঙ্গে
নবান্নের বিজেপির প্রতিনিধি দল, বৈঠক মুখ্য সচিবের সঙ্গে

পুলিশের ভোট পুলিশ ছিনতাই করছে, বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন বিজেপি নেতারা। বিশেষ কয়েকজন পুলিশ কর্তাদের নামে অভিযোগ তুলে নবান্নে গিয়ে মুখ্য সচিবের সঙ্গে বৈঠক করলো বিজেপি নেতৃত্বরা। মঙ্গলবার নবান্নে পোস্টাল ব্যালটের ব্যবহার এবং পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে হাজির হলেন মুকুল রায়, স্বপন দাশগুপ্তরা। একই সঙ্গে যে সকল পুলিশ কর্তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে তাদের যেন ভোটের কাজে ব্যবহার না করা হয় সেই দাবি করেছেন বিজেপি নেতারা।

এদিন নবান্নে মুখ্যসচিবের পাশাপাশি রাজ্য পুলিশের ডিজি এবং কলকাতা পুলিশ কমিশনার কেউ একই অভিযোগ জানানো হয়েছে বিজেপি তরফে। মুকুল রায়দের অভিযোগ, পুলিশ কল্যাণ বোর্ডের মাধ্যমে ইচ্ছাকৃতভাবেই পোস্টাল ব্যালটের ভোট গুলিকে ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করছে। এমনকি পোস্টাল ব্যালটে ভোট গুলিকে একই ব্যারাকে আনার চেষ্টা করছে প্রশাসন। যার ফলে ছিনতাই বা ভোট হতে পারে বলে আশঙ্কা করছে বঙ্গ বিজেপি।

বিজেপি নেতৃত্ব আরও বলেন, “অনেক আগেই এপিক কার্ড নেওয়া হচ্ছে৷ যারা করছেন তাদের মধ্যে তিনজনকে সনাক্ত করা হচ্ছে। শান্তনু সিনহা ইন্সপেক্টর বাকি দুজন সাব ইন্সপেক্টর। পর্যবেক্ষকদের বলেছি। ফর্ম ১২ বি যারা আশি বছরের উর্ধে তাদের বাড়ি যাবে কমিশন। সেখানে কেন্দ্রীয় বাহিনী যাবে। স্টেট পুলিশের ভোট পুলিশ ছিনতাই করছে। থানা থেকেই বলে দেওয়া হয়েছে”।

এই প্রসঙ্গে এদিন মুকুল রায় জানান, মুখ্যসচিবের সঙ্গে বৈঠকে সমস্ত বিষয় জানানো হয়েছে। রাজ্যের তরফের বলা হয়েছে প্রশাসন ইচ্ছাকৃত কোন ভুল করেনি। ভুল হয়ে থাকে তবে সেটা একেবারেই অনভিপ্রেত এবং অনিচ্ছাকৃত। রাজ্যের তরফে বিজেপিকে আশ্বাস দিয়ে যা যা করণীয় তা করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

অন্যদিকে বিজেপি রাজ্যসভার সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত বলেন, তিনজন পুলিশ অফিসারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন তাঁরা। তাদের নাম জানানো হয়েছে মুখ্য সচিব কে। একই সঙ্গে এই অভিযুক্ত তিন পুলিশ কর্মীর বিরুদ্ধে যথাসম্ভব তাড়াতাড়ি ব্যবস্থা নিতে হবে বলেও দাবি করেছেন স্বপন বাবু।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.