সোমবার, ১৫ আগস্ট, ২০২২

দলনেতাদের ক্ষোভের কারণ কি? জানতে ফের আজ বৈঠকে বঙ্গ বিজেপি

০৯:৪৯ এএম, জানুয়ারি ১৫, ২০২২

দলনেতাদের ক্ষোভের কারণ কি? জানতে ফের আজ বৈঠকে বঙ্গ বিজেপি

দলে একের পর এক নেতা বেসুরো হচ্ছেন। হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়ে বেরিয়ে যাচ্ছেন অনেকেই। কিন্তু কি কারণে এত ক্ষোভ জন্মাচ্ছে নেতাদের মনে সেই সমস্ত কিছু জানতে শনিবার ফের একবার বৈঠকে বসতে পারে বঙ্গ বিজেপি। জানা গিয়েছে, এদিন ক্ষুব্ধ নেতাদের নিয়ে বৈঠকে বসতে পারেন বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্ব।

সূত্রের খবর, শনিবার দক্ষিণ কলকাতায় পোর্ট ট্রাস্টের গেস্ট হাউজে ফের বৈঠকে বসতে পারেন বিজেপির বিক্ষুব্ধ নেতারা। ডাকা হয়েছে দলের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়া বাঁকুড়া, নদিয়ার বিক্ষুব্ধ বিধায়কদের। থাকতে পারেন শান্তনু ঠাকুর, সায়ন্তন বসু, জয়প্রকাশ মজুমদার, রিতেশ তিওয়ারিরা।

রাজ্য বিজেপিতে ক্রমেই বাড়ছে অসন্তোষ! জোরাল হচ্ছে সংঘাতের সম্ভাবনা। কমিটিতে জায়গা না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ দলের একাংশ। এই পরিস্থিতিতে শনিবার ফের বৈঠকে বসতে পারেন রাজ্য বিজেপির বিক্ষুব্ধ নেতারা। এছাড়াও সূত্রের খবর, কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে রাজ্য নেতৃত্বের বিরুদ্ধে নালিশ করতে পারেন মতুয়া সম্প্রদায়ের শান্তনু ঠাকুর। যদিও রাজ্য বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য দাবি করেছেন, দলে কোনও অসন্তোষ নেই।

তবে দলের একাংশের মতে, নবাগতদের বেশি গুরুত্ব দিয়ে অভিজ্ঞ নেতাদের দূরে সরিয়ে রাখা হচ্ছে। সেই জায়গা থেকেই ক্ষোভ জন্মাচ্ছে অভিজ্ঞ পুরনো নেতাদের মনে। তাই একের পর এক দল ত্যাগ এবং হোয়াৎসঅ্যাপ গ্রুপ ছাড়ার হিড়িক লেগেছে। তবে ক্ষোভের অন্য কারণ হিসেবে উঠে আসছে, মতুয়া সম্প্রদায় কে গুরুত্ব না দেওয়ার বিষয়টিও। যেখানে মতুয়া ভোটব্যাঙ্কের জেরে গত লোকসভা ও বিধানসভা নির্বাচনে বড় সাফল্য পেয়েছে বিজেপি, সেখানে নতুন রাজ্য ও জেলা কমিটিতে মতুয়া সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিদের জায়গা না দেওয়ায়, ইতিমধ্যেই ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন বহু নেতা।