২ যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু! শান্তিপুরে টায়ার জ্বালিয়ে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ বিজেপির

২ যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু! শান্তিপুরে টায়ার জ্বালিয়ে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ বিজেপির
২ যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু! শান্তিপুরে টায়ার জ্বালিয়ে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ বিজেপির / নিজস্ব ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ নদিয়াঃ মলয় দেঃ নদীয়ার শান্তিপুরের হরিপুর পঞ্চায়েতের অন্তর্গত মেথির ডাঙ্গা গ্রামের একটি কলাবাগান থেকে উদ্ধার হয় দুই যুবকের মৃতদেহ। জানা যায় তাঁরা ধান কল শ্রমিক। মৃতদেহ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য দেখা যায় এলাকায়। এরপর শান্তিপুর থানায় বিজেপির পক্ষ থেকে দফায় দফায় বিক্ষোভ দেখানো শুরু হয়। বিক্ষোভে উপস্থিত হন সাংসদ জগন্নাথ সরকার, বিজেপি দক্ষিণ জেলা সাংগঠনিক সভাপতি অশোক চক্রবর্তী, দক্ষিণ জেলা বিজেপি যুব মোর্চার সভাপতি ভাস্কর ঘোষ সহ বিভিন্ন মন্ডল সভাপতি জেলা কমিটির সদস্য এবং স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। তাদের দাবি ওই দুই যুবকের মধ্যে দীপঙ্কর বিশ্বাস সরাসরি বিজেপির কর্মী ছিলেন, এবং প্রতাপ বর্মন সমর্থক ছিলেন।

প্রসঙ্গত তাদের দাবি গতকাল তৃণমূলের আশ্রিত দুষ্কৃতীরা নির্বাচনের প্রাক্কালে ভীতি প্রদর্শনের জন্য এধরনের সন্ত্রাস করছেন। যদিও প্রতাপ বর্মন এর পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয় তাদের ছেলে কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত ছিল না। এছাড়া পুলিশ মৃতদেহ পরিবারের দেখার সুযোগ না করে দিয়ে তরিঘড়ি পোসমাডাম এর জন্য পাঠিয়ে দেয়। সেকারনে পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার বিরুদ্ধেও অভিযোগ উঠেছে।

অন্যদিকে মৃত দুই পরিবারকে ওই অঞ্চলের এক তৃণমূল কর্মী থানার মধ্যে হুমকি দেওয়ার কারনে, মৃতদেহ পরিবারের হাতে ফিরিয়ে দিতে এবং আর্থিক সহযোগিতার প্রতিশ্রুতির বিরুদ্ধে আজ শান্তিপুর ডাকঘর মোড়ে, রাস্তা অবরোধের সাথে রাস্তার উপর টায়ার জ্বালিয়ে প্রায় আধঘন্টা বিক্ষোভ চলে। বিক্ষোভে নেতৃত্ব দেন নদীয়া জেলা দক্ষিণ সাংগঠনিক সভাপতি অশোক চক্রবর্তী এবং যুব সভাপতি ভাস্কর ঘোষ সহ বেশ কিছু জেলা নেতৃত্ব। এরপর প্রশাসন এসে তাদের অবরোধ তুলে দেওয়ার অনুরোধ করেন। তবে অবরোধ তুলে দিলেও আগামীকালকে শান্তিপুর বিধানসভায় ১২ ঘণ্টা বন্ধ ঘোষণা করে ভারতীয় জনতা দলের পক্ষ থেকে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.