ভবানীপুরে মমতার বিরোধী মুখ কে? শীঘ্রই বৈঠকে বসছে বিজেপি

ভবানীপুরে মমতার বিরোধী মুখ কে? শীঘ্রই বৈঠকে বসছে বিজেপি
ভবানীপুরে মমতার বিরোধী মুখ কে? শীঘ্রই বৈঠকে বসছে বিজেপি

উপনির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। পাঁচটি কেন্দ্রে উপনির্বাচন বাকি থাকলেও একমাত্র ভবানীপুরে উপ নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা করা হয়েছে কমিশনের তরফে। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বিজেপি। ক্ষোভ প্রকাশ করলেও হেভিওয়েট ভবানীপুরে তাকে প্রার্থী করা হবে তা নিয়ে আগামী সোম ও মঙ্গলবার বৈঠকে বসতে চলেছে রাজ্য বিজেপি।

জানা গিয়েছে, একপাশে প্রার্থী নির্ধারণ, অন্যদিকে আইনি প্রক্রিয়া দুই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠক হতে পারে।একইসঙ্গে ভবানীপুরে প্রার্থী হিসেবে ৫টি নাম নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে। এদের মধ্যে রুদ্রনীল ঘোষ, তথাগত রায়, প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম রয়েছে। সূত্রের খবর, এই নিয়ে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সঙ্গে আলোচনা করা হতে পারে।

বিজেপি সূত্রে খবর, আগামী সপ্তাহের ওই বৈঠকে প্রত্যেক কেন্দ্র-পিছু একাধিক নাম নিয়ে আলোচনা করা হবে। তবে প্রার্থী কে হবে সেই নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। দিলীপ ঘোষরা শুধুই কেন্দ্র-পিছু ২ থেকে ৩ করে নাম পাঠাবে বলে জানা গিয়েছে।তবে ভবানীপুর কেন্দ্রে রুদ্রনীলকেই প্রার্থী করা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। প্রসঙ্গত, বিধানসভা ভোটেও তিনিই এই কেন্দ্রের প্রার্থী হয়েছিলেন। শোভন দেব চট্টোপাধ্যায়ের কাছে পরাজিত হয়েছিলেন তিনি। এদিকে বাকি দুই কেন্দ্রে কাদের প্রার্থী করা যায় সেই নিয়ে এখনও ভাবনাচিন্তা চলছে।

এবারের উপনির্বাচনে ভবানীপুর যে হাইভোল্টেজ কেন্দ্র তা বলার অপেক্ষা রাখে না। নিঃসন্দেহে কেন্দ্র থেকে তৃণমূলের প্রার্থী হবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দিন ভোটের দিন ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই ভবানীপুর কেন্দ্রে হোর্ডিং, পোস্টারে ছয়লাপ হয়ে গিয়েছে চারদিক। অন্যদিকে ভবানীপুরে কংগ্রেস কাকে প্রার্থী করবে সেই বিষয়ে সোনিয়া গান্ধী চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন বলে জানিয়েছেন সালমান খুরশিদ। যদিও প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী ব্যক্তিগত ভাবে জানিয়েছিলেন ভবানীপুরে প্রার্থী দিতে চায়না কংগ্রেস। যদিও পরে তিনি সেই কথা প্রত্যাহার করেন। ভবানীপুরের মত হাইভোল্টেজ কেন্দ্রের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বিজেপি ও বিরোধীদলরা কাকে প্রার্থী করবে সেটাই এখন দেখার।