পাশবিক! ফুটন্ত পিচের ড্রামে ডুবিয়ে মারা হলো ৬ কুকুরছানাকে

পাশবিক! ফুটন্ত পিচের ড্রামে ডুবিয়ে মারা হলো ৬ কুকুরছানাকে / প্রতীকী ছবি
পাশবিক! ফুটন্ত পিচের ড্রামে ডুবিয়ে মারা হলো ৬ কুকুরছানাকে / প্রতীকী ছবি

পথ কুকুরদের ওপর অত্যাচারে হবে মোটা জরিমানা। সেই সঙ্গে হতে পারে জেলও। সম্প্রতিই ঘোষিত হয়েছে এই রায়। কিন্তু তারপরও কমেনি পথ কুকুরদের ওপর অত্যাচারের নৃশংস ঘটনার নজির৷ কিছুদিন আগেই সরস্বতী পুজোর দিন খিচুড়িতে বিষ মিশিয়ে খাওয়ানো হয়েছিল পথ কুকুরদের। এবার ঘটল আরেক পাশবিক ঘটনা! ফুটন্ত পিচের ড্রামের মধ্যে ফেলে মারা হল ৬ পথ কুকুরছানাকে।

ঘটনাটির কেন্দ্রস্থল দূর্গাপুরের মুচিপাড়া সংলগ্ন আরআইপি শিল্পতালুক। সেখানেরই এক বেসরকারি কারখানার নিরাপত্তারক্ষীর ওপর উঠেছে এই অভিযোগ। নিউ টাউনশিপ থানা এলাকার আরআইসি প্লটে ওই নিরপত্তারক্ষী কুকুরছানাগুলিকে গরম পিচে ডুবিয়ে দেয়৷ শরীরে ফুটন্ত পিচ লেগে থাকায় তারা আর সেখান থেকে বেরোতেও পারেনি। সোমবার সকালে স্থানীয় বাসিন্দারা দেখেন, রাস্তার পাশে পড়ে রয়েছে ৬টি কুকুরের দেহ। গায়ে লেগে রয়েছে কালো পিচ। এরপর তাঁরা স্থানীয় এক স্বেচ্ছাসেবী পশু সংগঠনকে খবর দেয়। সেই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটিই এরপর থানায় অভিযোগ দায়ের করে।

গোটা ঘটনায় চারপাশে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। শহরের অন্যান্য পশুপ্রেমী সংস্থাগুলিও তুলেছেন প্রতিবাদের সুর। ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন এলাকাবাসীও। যে সংগঠনটি অভিযোগ দায়ের করে, তাদের তরফে সুস্মিতা সেনগুপ্ত জানিয়েছেন অভিযুক্তের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির কথা। পুলিশ-প্রশাসনকে কঠোর শাস্তির ব্যাপারে অনুরোধও জানিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে অঞ্চলের মহকুমাশাসক অর্ঘ্যপ্রসূন কাজি ঘটনাটিকে নিন্দনীয় বলে উল্লেখ করেন। এছাড়াও পুলিশকে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও জানান তিনি।

ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করে দিয়েছে পুলিশ। যেখানে কুকুরগুলিকে পিচের মধ্যে ফেলা হয়েছে সেই অঞ্চলের সিসিটিভি ফুটেজ থেকেও ঘটনার প্রমাণ প্রসঙ্গে জানা গিয়েছে। তবে নিরপত্তারক্ষীটি ঠিক কী কারণে এমন পাশবিক কাজ করেছে, তা এখনও জানা যায়নি।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.