একজন ভালোবাসার মানুষ চলে গেলেন! সুকুদার স্মৃতিচারণায় বুদ্ধবাবু

একজন ভালোবাসার মানুষ চলে গেলেন! সুকুদার স্মৃতিচারণায় বুদ্ধবাবু
একজন ভালোবাসার মানুষ চলে গেলেন! সুকুদার স্মৃতিচারণায় বুদ্ধবাবু

বিশিষ্ট সাহিত্যিক বুদ্ধদেব গুহর মৃত্যুতে শোকবার্তা জানালেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। সোমবার রাতে এক বিবৃতিতে নিজের শোক বার্তা জানান তিনি। রবিবার রাত ১১.২৫ মিনিট নাগাদ মৃত্যু হয় সাহিত্যিক বুদ্ধদেব গুহর। মৃত্যুকালে এই প্রবীণ সাহিত্যিকের বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর।

সাহিত্যিক বুদ্ধদেব গুহর প্রয়াণে গভীর শোকপ্রকাশ করে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য বলেছেন, ‘‘আমাদের একজন ভালোবাসার মানুষ চলে গেলেন। অনেকদিন ধরে আমাদের পরিবারের সঙ্গে ওঁর পরিচয়, যাওয়া আসা, কথাবার্তা। আধুনিক বাংলা কথাসাহিত্যে উনি একটা আলাদা ঘরানা তৈরি করেছিলেন। ওঁর সমস্ত লেখার ভাবনার কেন্দ্রে রেখেছিলেন প্রকৃতিকে। এরাজ্যের জঙ্গল এলাকা, গাছপালা, ফুলফল এইসব ওঁর লেখায় গভীরভাবে চিত্রিত। শেষের দিকে অসুস্থ অবস্থায় আর লিখতে পারছিলেন না। তারপরে নিজের মতো চলে গেলেন। আমরা পরিচিতজনেরা, ওঁর পাঠকরা ক্ষতিগ্রস্ত হলাম।’’

অন্যদিকে সিপিআই(এম) রাজ্য সম্পাদক সূর্য মিশ্র শোক জানিয়ে বলেছেন, ‘‘বাংলা ভাষার প্রখ্যাত কথাকার তথা সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রের বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী বুদ্ধদেব গুহর প্রয়াণে আমরা শোকাহত। তিনি বেঁচে থাকবেন তাঁর কালজয়ী সৃষ্টির মধ্যেই।’’

তার মৃত্যুতে শোক বার্তা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। তিনি লেখেন, “বুদ্ধদেব গুহর প্রয়াণের খবরে আমি গভীরভাবে শোকাহত। বাংলার মানুষের অত্যন্ত প্রিয় লেখক তিনি। সাহিত্য জগতে এক বিশাল শূন্যতা রেখে চলে গেলেন। বুদ্ধদেববাবুর পরিবার ও অনুরাগীদের প্রতি আমার সমবেদনা রইল।”

গত ৩১ জুলাই থেকে শহরের এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। সেখানেই মৃত্যু হয় তাঁর। সোমবার কেওড়াতলা মহাশ্মশানে সম্পন্ন হল তাঁর শেষকৃত্য। তাঁকে শ্রদ্ধা জানান অনুরাগীরা। শ্রদ্ধা জানান ফিরহাদ হাকিম, ইন্দ্রনীল সেনরা। প্রবীণ সাহিত্যিকের মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে সাহিত্য জগতে।