কাঁধে বাচ্চাকে ঝুলিয়ে শ্রমজীবী এক মা! ছবি শেয়ার করে নেটিজেনদের তীব্র সমালোচনার মুখে হর্ষ গোয়েঙ্কা

কাঁধে বাচ্চাকে ঝুলিয়ে শ্রমজীবী এক মা! ছবি শেয়ার করে নেটিজেনদের তীব্র সমালোচনার মুখে হর্ষ গোয়েঙ্কা / Image Source- Tweeted By @hvgoenka
কাঁধে বাচ্চাকে ঝুলিয়ে শ্রমজীবী এক মা! ছবি শেয়ার করে নেটিজেনদের তীব্র সমালোচনার মুখে হর্ষ গোয়েঙ্কা / Image Source- Tweeted By @hvgoenka

বাণিজ্যের পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতেও বেশ তৎপর আরপিজি গ্রুপের চেয়ারম্যান, হর্ষ গোয়েঙ্কা। প্রায়দিনই তাঁকে দেখা যায় নানা চমকপ্রদ বিষয় শেয়ার করে নেটিজেনদের মনোরঞ্জন করতে। তবে মাঝেমধ্যে কিছু বিতর্কিত ছবির কারণে নেটিজেনদের তীব্র সমালোচনার শিকারও হন তিনি৷ সম্প্রতিই তিনি টুইটারে শেয়ার করলেন এমনই এক ছবি৷ যা দেখে ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন নেটিজেনরা।

ছবিটিতে দেখা যাচ্ছে এক মা বিয়ের শোভাযাত্রায় আলোকসজ্জা বহন করছেন। তাঁর কাঁধে বাঁধা ঝোলাতে রয়েছে এক শিশু। যা শেয়ার করে শিল্পপতি লিখেছেন, “আমার মনে হয় আমি মাঝে মাঝে অনেক প্রচেষ্টা চালিয়েছি এবং তারপরই আমি এই ছবিটি দেখলাম! আমার সেলাম!” কিন্তু এরপরই চটেছেন নেটিজেনরা। কারণ, শিল্পপতির শেয়ার করা ছবিটির পরতে পরতে ফুটে উঠছে দারিদ্র্য এবং সামাজিক বৈষম্য। সঙ্গে এক মায়ের নিত্যদিনের দিন গুজরানের লড়াই।

দারিদ্র্যকে মহিমান্বিত করার জন্য ছবিটিকে বেশিরভাগ মানুষই আপত্তির নজরে দেখেছেন। তাঁদের মতে, ছবিটি আমাদের সমাজ ব্যবস্থার ঘৃণ্য রূপের একটি উদাহরণ। তা নিয়ে গর্ব করার কিছুই নেই। বরং দুঃখ প্রকাশ করা উচিৎ। কারণ ছবিটি দেখে লজ্জায় মাথা নত হয়ে আসে।

“তার সাহসকে অভিবাদন জানানোর পরিবর্তে আমাদের লজ্জা বোধ করা উচিত যে তাকে এইসব সমস্যার মধ্য দিয়ে যেতে হচ্ছে”- একথাও লিখেছেন এক টুইটার ব্যবহারকারী। অন্য আরেকজন প্রায় ক্ষোভের সঙ্গেই জানান দেন, “দারিদ্র্যকে গৌরবান্বিত করা বন্ধ করুন!”

শিল্পপতি অবশ্য তা মানতে নারাজ। নিজের স্বপক্ষে সাফাই দিয়ে তিনি লেখেন, “এটা দারিদ্র্য নাকি মা ও সন্তানের সম্পর্ক? স্পষ্টতই তা আপনার দৃষ্টিভঙ্গীর ওপর নির্ভর করে!” যদিও এরপরও সমালোচনা কমেনি। প্রসঙ্গত, গত বছরের সেপ্টেম্বরেও মাথায় ইট এবং পিঠে বাঁধা শিশুকে নিয়ে এক শ্রমজীবী মহিলার কাজ করার ছবি করার শেয়ার করেছিলেন শিল্পপতি। সেই পোস্টটিও ভরে উঠেছিল নানা নেতিবাচক প্রতিক্রিয়ায়।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.