ফোনে ব্যস্ত নার্স! একটির বদলে দিয়ে দিলেন করোনা টিকার ২ টি ডোজ়!

ফোনে ব্যস্ত নার্স! একটির বদলে দিয়ে দিলেন করোনা টিকার ২ টি ডোজ়! / প্রতীকী ছবি
ফোনে ব্যস্ত নার্স! একটির বদলে দিয়ে দিলেন করোনা টিকার ২ টি ডোজ়! / প্রতীকী ছবি

দেশ জুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা দ্বিতীয় ঢেউ। সংক্রমণ ঠেকাতে জারি রয়েছে টিকাকরণ প্রক্রিয়াও। তবে এই টিকা নিতে গিয়েই সম্প্রতি এমন এক কাণ্ড ঘটেছে, যা দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচতে করোনা টিকা নিতে গিয়েছিলেন উত্তর প্রদেশের এক মহিলা। কিন্তু নার্স ফোনে কথা বলতে ব্যস্ত থাকায় ভুলবশত একইসঙ্গে দুটি ডোজ দিয়ে দেন। যা নিয়ে বেশ চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে এলাকায়।

সূত্রের খবর, শনিবার স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে টিকা নিতে গিয়েছিলেন উত্তরপ্রদেশের কানপুরের বাসিন্দা কমলেশ কুমারী। তাঁর এদিন প্রথম ডোজ নেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু যে নার্স টিকাটি দিচ্ছিলেন তিনি তখন ফোনে ব্যস্ত ছিলেন। তাই ভুল করে একটির বদলে দুটি টিকা দিয়ে দেন। এদিকে, দুটি ডোজ নেওয়ার ফলে মহিলার হাত ফুলে যায়। এ ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে মহিলাটির ওপরই চিৎকার শুরু করেন নার্সটি। এমনকি নিজের ভুলও স্বীকার করেননি তিনি।

প্রসঙ্গত, করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ় নেওয়ার সাধারণত দুই সপ্তাহ বা চার সপ্তাহ পর দ্বিতীয় ডোজ়টি নিতে হয়। তবেই টিকার কার্যকারিতা পাওয়া যায়। কিন্তু উত্তরপ্রদেশের ওই নার্সের ভুলে একইসঙ্গে দু’টি ডোজ় দিয়ে নেওয়ায় ওই মহিলার বিভিন্ন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। এমনকি মৃত্যুর আশঙ্কাও প্রকাশ করেছেন এক স্বাস্থ্য আধিকারিক।

অন্যদিকে, ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় বেশ উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে। ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছেন মহিলাটিফ পরিবারের লোকজনও। স্বাস্থ্যকেন্দ্রটিকে গিয়ে বিক্ষোভ দেখানোর পাশাপাশি জেলাশাসক ও মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের কাছেও অভিযোগ দায়ের করেন তারা। এ প্রসঙ্গে জেলাশাসক জিতেন্দ্র প্রতাপ সিং জানিয়েছেন, তাঁরা নার্সের গাফিলতির অভিযোগটি খুঁটিয়ে দেখছেন। এই বিষয়ে তদন্ত করে মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিককে একটি রিপোর্ট জমা দেওয়ারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.