এবার মান্থলি টিকিট না কাটলেও চাপা যাবে লোকাল ট্রেনে! কীভাবে? জানুন বিস্তারিত

এবার মান্থলি টিকিট না কাটলেও চাপা যাবে লোকাল ট্রেনে! কীভাবে? জানুন বিস্তারিত
এবার মান্থলি টিকিট না কাটলেও চাপা যাবে লোকাল ট্রেনে! কীভাবে? জানুন বিস্তারিত

করোনা আবহে আপাতত রাজ্যে লোকাল ট্রেন চলাচল বন্ধ। শুধুমাত্র স্টাফ স্পেশাল, কিছু প্যাসেঞ্জার স্পেশাল ট্রেন, মেল এবং এক্সপ্রেস স্পেশাল ট্রেন চলছে। এই ট্রেন গুলিতে চাপার জন্য মান্থলি টিকিট বাধ্যতামূলক ছিল। ফলে নিত্যদিনের জরুরি পরিষেবার কাজে যুক্ত যাত্রীরা বাদে বিশেষ দরকারেও কেউ ট্রেনে উঠতে পারছিলেন না। তবে এবার স্বস্তির খবর! জনসাধারণের জন্য লোকাল ট্রেন না চালানো হলেও স্পেশাল ট্রেনে চড়ার ক্ষেত্রে বেশ কিছু ছাড় ঘোষণা করল পূর্ব রেল। এবার থেকে দৈনিক টিকিট কেটেই সুযোগ মিলবে ট্রেন যাত্রার।

এবার থেকে ‘অন ডিমান্ড’ পদ্ধতিতে দৈনিক টিকিট বিক্রি শুরু করল রেল। এর ভিত্তিতে সকল স্টাফ স্পেশাল লোকাল ট্রেনে চাপার অনুমতি পাবেন বিভিন্ন ক্ষেত্রের মানুষেরা। যাত্রীদের শুধু জানাতে হবে কী জরুরি কাজের জন্য তাঁরা ট্রেনে যাতায়াত করতে চান। মঙ্গলবার থেকেই শিয়ালদা সহ বেশ কিছু স্টেশনে এই পদ্ধতিতে টিকিট দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। তবে ‘অন ডিমান্ড’ টিকিটের মাধ্যমে যাত্রীদের স্টাফ স্পেশাল ট্রেনে চাপার অনুমতি দেওয়া হলেও, জরুরী ক্ষেত্রের জন্যই তা ব্যবহার করতে পারবেন যাত্রীরা।

এবার মান্থলি টিকিট না কাটলেও চাপা যাবে লোকাল ট্রেনে! কীভাবে? জানুন বিস্তারিত
এবার মান্থলি টিকিট না কাটলেও চাপা যাবে লোকাল ট্রেনে! কীভাবে? জানুন বিস্তারিত

‘অন ডিমান্ড’ পদ্ধতিতে যাত্রীদের মান্থলি টিকিট কাটতে হবে না। পরিবর্তে জরুরিভিত্তিতে যাতায়াতের জন্য কাউন্টার থেকেই সেই দিনের দৈনিক টিকিট কাটা যাবে। এর জন্য বিশেষ পরিচয়পত্রেরও প্রয়োজন নেই। টিকিট কাটার সময় সফরের কারণ অর্থাৎ কোথায়, কী জরুরি কারণে যাচ্ছেন তা জানালেই হবে। রাজ্যে ‘অন ডিমান্ড’ ব্যবস্থায় স্টাফ স্পেশাল ট্রেনে ওঠার অনুমতির ক্ষেত্রে বেশ কিছু ক্যাটেগরিও বেছে নেওয়া হয়েছে। কেউ ওষুধ কেনার জন্য কোথাও যেতে চান বা কেউ রোগীকে দেখতে যেতে চান অথবা বিশেষ কোনও জরুরি দরকার, এমন সব ক্ষেত্রের মানুষেরাই ‘অন ডিমান্ড’ টিকিট কেটে স্টাফ স্পেশাল ট্রেনে চাপবে পারবেন বলে জানানো হয়েছে।

তবে ইতিমধ্যেই শিয়ালদহ ডিভিশনে ‘অন ডিমান্ড’ টিকিট বিক্রি শুরু হলেও, হাওড়া ডিভিশনে এখনও এই টিকিট বিক্রি শুরু হয়নি। ওই ডিভিশনে মান্থলি কেটেই যাতায়াত করতে হচ্ছে। এই প্রসঙ্গে হাওড়ার ডিআরএম সুমিত নারুলা জানিয়েছেন, “দৈনিক টিকিট বা ‘অন ডিমান্ড’ টিকিট বিক্রির কোনও নির্দেশ এখনও হাওড়া ডিভিশনে আসেনি। ফলে পুরনো সিদ্ধান্তই বহাল থাকছে। তবে কয়েকটি ক্যাটেগরির কর্মীদের ছাড় দেওয়া হয়েছে। সেই ক্যাটেগরির কর্মীরা আই কার্ড দেখিয়ে মান্থলি কাটতে পারবেন।” পাশাপাশি, জয়েন্টের জন্য গত শনিবার অ্যাডমিট কার্ড দেখিয়ে টিকিট কাটার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। আবার আগামী ২৩, ২৪, ২৬ ও ৩১ জুলাই রেলের পরীক্ষার দিনগুলিতেও টিকিট কেটে পরীক্ষার্থীরা ট্রেনে চড়তে পারবেন।