শীতলকুচির বুথে গুলিকাণ্ডে কেন্দ্র-রাজ্য উভয় সরকারের কাছে হলফনামা তলব কলকাতা হাইকোর্টের

শীতলকুচির বুথে গুলিকাণ্ডে কেন্দ্র-রাজ্য উভয় সরকারের কাছে হলফনামা তলব কলকাতা হাইকোর্টের
শীতলকুচির বুথে গুলিকাণ্ডে কেন্দ্র-রাজ্য উভয় সরকারের কাছে হলফনামা তলব কলকাতা হাইকোর্টের

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ আর কয়েক ঘণ্টা পরেই রয়েছে ভবানীপুরে উপনির্বাচন। আবার একইসঙ্গে নির্বাচন রয়েছে মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জেও। এদিকে, এই নির্বাচনী আবহে একুশের বিধানসভা নির্বাচনে শীতলকুচির বুথে গুলিকাণ্ডে এবার কেন্দ্র এবং রাজ্য উভয় সরকারের কাছে হলফনামা তলব করল কলকাতা হাইকোর্ট।

একুশের বিধানসভা নির্বাচনের চতুর্থ দফার ভোটে, ভোট গ্রহণের দিনেই শীতলকুচির জোড়পাটকির ১২৬ নম্বর বুথে অশান্তির জেরে গুলিতে ৪ জনের মৃত্যু হয়। সেই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে পরে কলকাতা হাইকোর্টে দায়ের হয় জনস্বার্থ মামলা। বুধবার সেই মামলার শুনানিতে কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারের কাছে হলফনামা তলব করল হাইকোর্ট।

এদিন এই মামলার শুনানিতে কলকাতা হাইকোর্ট জানিয়েছে যে, শীতলকুচির গুলিকাণ্ডে সিআইডি তদন্তের অগ্রগতি নিয়ে রিপোর্ট আকারে হলফনামা দিতে হবে রাজ্য সরকারকে। আবার অন্যদিকে, সিআইএসএফ গুলি কীভাবে, কোন পরিস্থিতিতে চালিয়েছিল, তার কার্যকারণ ইত্যাদির বিস্তারিতভাবে ব্যাখ্যা দিয়ে কেন্দ্রকেও হলফনামা আদালতে জমা দিতে হবে। বুধবার কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারের কাছে এই পিটিশন তলব করে নির্দেশ দেন কলকাতা হাইকোর্টের ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দলের ডিভিশন বেঞ্চ। আগামী নভেম্বর মাসে রয়েছে মামলার পরবর্তী শুনানি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, একুশের বিধানসভা নির্বাচনের পর ৫ মাস পেরিয়ে গেছে। ১০ এপ্রিল, চতুর্থ দফার ভোটের দিন উত্তপ্ত হয়ে ওঠে কোচবিহারের শীতলকুচি জোড়পাটকির ১২৬ নম্বর বুথ। সেখানে ব্যাপক গণ্ডগোল শুরু হয়। গণ্ডগোল থামাতে গিয়ে গুলি চালায় কেন্দ্রীয় বাহিনী। অভিযোগ, বাহিনীর গুলিতে চারজনের মৃত্যু হয়। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে রীতিমতো তোলপাড় শুরু হয়। তদন্তে উঠে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। সিআইডি-র অনুমান, বুথ লক্ষ্য করে গুলি চালিয়েছিল কেন্দ্রীয় বাহিনী। দরজা ভেদ করে সেই গুলি লাগে ব্ল্যাকবোর্ডে! এমনকী, ব্ল্যাকবোর্ডে একটি চিহ্ন পাওয়া গিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এরপর ঘটনাস্থলে গিয়ে নমুনা সংগ্রহ করেন ফরেন্সিকের ব্যালিস্টিক টিমের সদস্যরা। ভবানীভবনে কোচবিহারের তৎকালীন পুলিশ সুপার দেবাশিস ধরকে জিজ্ঞাসাবাদও করেছেন সিআইডি-র আধিকারিকরা।

এদিন শীতলকুচিকাণ্ডে দায়ের হওয়া জনস্বার্থ মামলাতেই এবার রাজ্য ও কেন্দ্রের কাছে হলফনামা তলব করল ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি ডিভিশন বেঞ্চ। রাজ্যের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে, ‘সিআইডি-র তদন্তে কতটা অগ্রগতি হল’? পাশাপাশি সিআইএসএফ-র বিরুদ্ধে গুলির চালানোর অভিযোগের প্রেক্ষিতে আদালতে প্রশ্নের মুখে পড়েছে কেন্দ্রও।  তাই হলফনামা দিয়ে তাঁদের অবস্থান স্পষ্ট করতে হবে দিল্লিকেও।