সত্যিই কি গরম জলের ভাপ নিলে মরে যায় করোনা ভাইরাস? জেনে নিন UNICEF কী বলছে

সত্যিই কি গরম জলের ভাপ নিলে মরে যায় করোনা ভাইরাস? জেনে নিন UNICEF কী বলছে
সত্যিই কি গরম জলের ভাপ নিলে মরে যায় করোনা ভাইরাস? জেনে নিন UNICEF কী বলছে

করোনার দাপটে দিশেহারা এই দেশ। টিকাকরণ প্রক্রিয়া জারি থাকলেও সংক্রামিত হচ্ছেন বহু মানুষ। এদিকে গবেষকরা এখনও এই ভাইরাসের চরিত্র বুঝে উঠতে পারেননি। তা নিয়ে প্রতিনিয়তই চলছে গবেষণা। এদিকে করোনায় কেউ আক্রান্ত হলে যে সাধারণ লক্ষণগুলি প্রথমে নজরে আসে, তা প্রায় মরশুমী সর্দি-জ্বরের মতোই। ফলে প্রায়ই বিভ্রান্তিতে ভুগছেন মানুষ।

করোনা ভাইরাস নিয়ে বিশ্বের মানুষের সমস্ত রকম বিভ্রান্তি দূর করতে ইতিমধ্যেই আসরে নেমেছে UNICEF। নিয়ম করে জনগণের যাবতীয় অজানা প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছেন UNICEF কর্তারা। এই প্রসঙ্গেই সম্প্রতি গরম জলে ভাপ নেওয়া নিয়েও মুখ খুললেন তাঁরা। এর আগে বহুবার এই রব উঠেছিল যে, গরম জলে ভাপ নিলে নাকি করোনা ভাইরাস মরে যায়। ফলে এর প্রভাব কমে আসে। বিশেষ করে সর্দি-কাশি হলে তো এই টোটকা অনেক বেশি কাজে দেয়। তাই প্রত্যেকের নিয়ম করে গরম জলে ভাপ নেওয়া উচিৎ।

কিন্তু সত্যিই কি তা সঠিক? এ ব্যাপারে UNICEF কী বলছে? UNICEF সাউথ এশিয়ার মেটারনাল অ্যান্ড চাইল্ড হেল্থ বিভাগের রিজিওনাল অ্যাডভাইজর পল রাটার সোশ্যাল মিডিয়াতে জানিয়েছেন, গরম জলের ভাপ ইনহেল করলে তা শরীরের ভিতরে গিয়ে কোভিড ১৯ ভাইরাসকে ধ্বংস করতে পারবে, এরকম কোনও প্রমাণ এখনও পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। বরং এই প্রক্রিয়া ফুসফুসের পক্ষে অত্যন্ত ক্ষতিকর। পল রাটারের দাবি, গরম জলের ভাপ নিলে তা শরীরের ভিতরে গিয়ে আমাদের ইনহেলিং সিস্টেম বা শ্বাসযন্ত্রের কার্যকারিতার উপরে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে।

তিনি আরও বলেন, ক্রমাগত গরম জলের ভাপ নিলে তা শ্বাসনালীতে গিয়ে ছ্যাঁকা দেবে। পাশাপাশি শ্বাসনালী এবং খাদ্যনালীর সংযোগস্থল অর্থাৎ গলবিলও ক্ষতিগ্রস্ত হবে। ফলে সে ক্ষেত্রে নাক দিয়ে শ্বাস নিতে অসুবিধা হবে। মুখ দিয়ে শ্বাস নিতে হবে। আর মুখ দিয়ে শ্বাসকার্যের জন্য মুখ খুললে করোনা ভাইরাস শরীরেত ভিতরে প্রবেশ করার সম্ভাবনা বিপুল। তাই গরম জলের ভাপ নিলে আখেরে করোনা ভাইরাস মোটেও অকোজে হয় না। বরং তা ছড়িয়ে পড়তে আরও সুবিধে হয় বলেই UNICEF-এর মত।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.