নারদাকাণ্ডে দুই মন্ত্রী-সহ তৃণমূলের এক বিধায়ক গ্রেফতার! প্রতিবাদে জেলায় জেলায় বিক্ষোভ

নারদাকাণ্ডে দুই মন্ত্রী-সহ তৃণমূলের এক বিধায়ক গ্রেফতার! প্রতিবাদে জেলায় জেলায় বিক্ষোভ
নারদাকাণ্ডে দুই মন্ত্রী-সহ তৃণমূলের এক বিধায়ক গ্রেফতার! প্রতিবাদে জেলায় জেলায় বিক্ষোভ

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ আজই নাটকীয়ভাবে নারদাকাণ্ডে প্রথমে আটক করা হয় রাজ্যের দুই মন্ত্রী এবং এক তৃণমূল বিধায়কে। এঁরা হলেন রাজ্যে পরিবহণ মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্র। এছাড়াও কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়কেও আটক করে সকালে নিয়ে যাওয়া হয় নিজাম প্যালেসে। পরে সেখানেই তাঁদের প্রত্যেককে সকাল সাড়ে ১০ টা নাগাদ অ্যারেস্ট মেমোতে সই করানো হয় এবং তাঁদের গ্রেফতার করা হয়।

সকাল পৌনে এগারোটা নাগাদ সেখানে পৌঁছান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁকেও গ্রেফতারের চ্যালেঞ্জ জানান মুখ্যমন্ত্রী। এদিকে আজ নিজাম প্যালেসের বাইরে করোনাবিধি উপেক্ষা করে তৃণমূলের কর্মী এবং সমর্থকরা ভিড় করেন এবং বিক্ষোভ দেখা থাকেন এই গ্রেফতারির প্রতিবাদে। কেন্দ্রীয় বাহিনীকে লক্ষ করে ছোড়া হয় ইটও।

এদিকে, রাজ্যের দুই মন্ত্রী, এক বিধায়ক সিবিআইয়ের হাতে গ্রেফতার হওয়ার পর উত্তাল বাংলা। তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী-সমর্থকরা এলাকায় এলাকায় বিক্ষোভ দেখান। এই ঘটনা সামনে আসতেই, রাজ্যের সর্বত্র ক্ষোভে ফেটে পড়েন তৃণমূল কর্মী-সমর্থকরা। করোনা পরিস্থিতিতে জমায়েত নিষিদ্ধ হওয়ার কারণে অনেক জায়গায় বিক্ষোভ সংঘটিত করতে নিষেধ করছেন দলীয় নেতৃত্ব। তার পরেও নদীয়ার শান্তিপুর ফুলিয়া বাসস্ট্যান্ডে কর্মীরা ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে রাস্তার উপর টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখানো হয়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের সভাধিপতি রিক্তা কুন্ডু। তিনি সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে বলেন যে, ‘সবটাই সাধারণ মানুষ বুঝতে পারছে, কেন্দ্রীয় সরকার দলীয় স্বার্থে সিবিআই-কে ব্যবহার করছে।’

অন্যদিকে, নদিয়ার কল্যাণীতে যুব তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকেও বিক্ষোভ দেখানো হয়। কল্যাণী আইটিআই মোড়ের ঢিল ছোঁড়া দূরত্বে এই বিক্ষোভ অবরোধ করে তৃণমূল কংগ্রেস। এদিন বিক্ষোভ অবরোধে নেতৃত্ব দেন কল্যাণী যুব সভাপতি দেবাশিষ হালদার। ৩০মিনিট পথ অবরোধ করার পরে, ফের অবরোধ তুলে নেওয়াও হয়। আবার তৃণমূলের বিধায়ক-মন্ত্রীদের গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে কৃষ্ণনগর টু করিমপুর রাজ্য সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে, রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা।

ফিরহাদ হাকিমদের গ্রেফতারের প্রতিবাদে আজ আসানসোলের রাজপথে আন্দোলনে নামে তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূল কংগ্রেসের পরিবহন শ্রমিক নেতা রাজু আলুওয়ালিয়ার নেতৃত্বে আসানসোল সিটি বাস স্ট্যান্ডের সামনে টায়ার জ্বালিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী এবং সমর্থকরা বিক্ষোভ দেখান। ঝান্ডা নিয়ে রীতিমতো আন্দোলন শুরু করেন শ্রমিক সংগঠনের কর্মী ও সমর্থকরা। তাঁদের দাবি, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার চরিতার্থ করার জন্য বিজেপির এই ঘৃণ্য কাজ করেছে। তবে তৃণমূল এটা মেনে নেবে না।

এদিন নিউটাউনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের কুশপুতুল পোড়ানো হয়। যুব তৃণমূল কর্মীরা নিউটাউনের ঘুনি রোড়ে প্রতিবাদ করে। এখানেও প্রতিবাদে টায়ার পোড়ানো হয়েছে।