চিকিৎসা পরিষেবায় অক্সিজেনের ঘাটতি মেটাতে বড় সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের! রইল বিস্তারিত

চিকিৎসা পরিষেবায় অক্সিজেনের ঘাটতি মেটাতে বড় সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের! রইল বিস্তারিত
চিকিৎসা পরিষেবায় অক্সিজেনের ঘাটতি মেটাতে বড় সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের! রইল বিস্তারিত

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ দেশব্যাপী ভয়াবহ আকার নিয়েছে মারণ করোনা। প্রতিদিন ঝড়ের গতিতে বাড়ছে সংক্রমণ। সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। এই পরিস্থিতিতে বেশ কিছু রাজ্যের হাসপাতালে বেডের সমস্যা দেখা দিয়েছে। বেড খালি না থাকার জন্য এক একটা বেডে দুই থেকে তিনজনকে রাখা হচ্ছে। সঙ্গে দেখা দিয়েছে অক্সিজেনের অভাবও।

এহেন অবস্থায় চিকিৎসা পরিষেবায় অক্সিজেনের সরবরাহ ঠিক রাখতে, কেন্দ্রের পক্ষ থেকে বড় সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। সেই উদ্দেশে শিল্পক্ষেত্রে অক্সিজেনের ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করল কেন্দ্র সরকার। এ ব্যাপারে ইতিমধ্যেই সমস্ত রাজ্যের মুখ্যসচিবদের চিঠি লিখে এই নির্দেশের কথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব অজয় ভল্লা।

উল্লেখ্য, মহারাষ্ট্র, দিল্লি, মধ্যপ্রদেশের মতো রাজ্যে করোনা যেমন মারাত্মক আকার নিয়েছে, ঠিক তেমনই দেখা দিয়েছে ওষুধের পাশাপাশি অক্সজেনের সমস্যাও। এমনকি অক্সিজেনের অভাবে রোগী মৃত্যুর অভিযোগ পর্যন্ত উঠছে। করোনা আক্রান্তদের মধ্যে অনেকেই যেহেতু শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন, তাই অক্সিজেনের চাহিদাও বাড়ছে দ্রুত গতিতে।

এই জটিল পরিস্থিতিতে অক্সিজেনের সরবারহ স্বাভাবিক রাখতে এবং নিশ্চিত করতেই শিল্পক্ষেত্রে অক্সিজেনের ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করল কেন্দ্রীয় সরকার। যদিও স্টিল প্লান্ট, পেট্রোলিয়াম সহ ৯টি শিল্পকে এই নির্দেশিকার আওতার বাইরে রাখা হয়েছে৷ জানা গিয়েছে, আগামী ২২ এপ্রিল থেকে পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত এই সিদ্ধান্ত কার্যকর থাকবে৷

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, অক্সিজেনের যোগান নিশ্চিত করতে উদ্যোগী হয়েছে ভারতীয় রেলও। রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল জানিয়েছেন, গ্রিন করিডর করে অক্সিজেন বহনকারী ট্রেন চালানো হবে৷ যাতে খুব কম সময়ের মধ্যে তা গন্তব্যে পৌঁছে দেওয়া যায়৷ কেন্দ্রীয় রেল এবং বাণিজ্যমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল এ ব্যাপারে ১২টি রাজ্যের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন৷ তার পরেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, অবিলম্বে এই রাজ্যগুলিতে ৬১৭৭ মেট্রিক টন অক্সিজেন সরবরাহ করা হবে৷ সবথেকে পরিস্থিতি খারাপ যে রাজ্যের, সেই মহারাষ্ট্রকে দেওয়া হচ্ছে ১৫০০ মেট্রিক টন অক্সিজেন৷ দিল্লি পাবে ৩৫০ মেট্রিক টন, উত্তরপ্রদেশকে দেওয়া হবে ৮০০ মেট্রিক টন অক্সিজেন৷

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.