যশ নিয়ে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়ে মুখ্যসচিবকে চিঠি কেন্দ্রের

যশ নিয়ে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়ে মুখ্যসচিবকে চিঠি কেন্দ্রের
যশ নিয়ে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়ে মুখ্যসচিবকে চিঠি কেন্দ্রের

রাজ্যে দিকে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস। ইতিমধ্যেই এই নিয়ে বিশেষ কমিটি গঠন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এবার এই নিয়ে রাজ্যের মুখ্যসচিবকে চিঠি দিয়ে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের সচিব পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নিতে বললেন।

এদিনের চিঠিতে বলা হয়েছে, “বাড়তে পারে জল ও বায়ুবাহিত রোগের প্রকোপ, সতর্ক থাকতে হবে জনস্বাস্থ্য বিভাগকে। জরুরি ভিত্তিতে খুলতে হবে কন্ট্রোল রুম। ৭২ ঘণ্টায় পরিণত হবে ঘূর্ণিঝড়ে, প্রভাব পড়বে বাংলা ও ওড়িশার উপকূলবর্তী এলাকায়। করোনা পরিস্থিতিকে ঘোরাল করে তুলতে পাড়ে ঝড়। শিবির বা অস্থায়ী বাসস্থানে মানুষকে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা রাখতে হবে”।

এদিকে,ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় প্রশাসন কী, কী প্রস্তুতি নিয়েছে তা বিস্তারিত খোঁজ নেন চন্দ্রকোনা বিধানসভার বিধায়ক অরুপ ধাড়া। এদিন ব্লক প্রশাসনের সাথে প্রস্তুতি বৈঠক সারেন তিনি। বিধায়কের তরফে সবরকম সহযোগিতার আশ্বাস দেওয়া হয়।

আবহাওয়া দফতর সূত্রের খবর, পশ্চিমবঙ্গের উপকূলবর্তী এলাকায় আছড়ে পড়তে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’। মৎস্যজীবীদের সতর্ক করতে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে মাইকে প্রচার। উপকূলবর্তী এলাকাগুলি থেকে মানুষজনকে সরানোর প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছে। তৈরি থাকতে বলা হয়েছে বিপর্যয় মোকাবিলাকারী দলকেও। এছাড়া বাতিল করা হয়েছে পুরকর্মীদের ছুটিও। পাশাপাশি প্রশাসনের তরফ থেকে আরও বেশ কিছু নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।

হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, নিম্নচাপটি ঘুর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে আগামী ২৪ তারিখ। সেদিন থেকেই বাংলায় এর প্রভাব দেখা যাবে। ২৬ বা ২৭ তারিখ বাংলা ও ওড়িশায় আছড়ে পড়তে পারে।