বাবুঘাট বাস টার্মিনাল থেকে উদ্ধার ২৫০ পাখি, গ্রেফতার ২

বাবুঘাট বাস টার্মিনাল থেকে উদ্ধার ২৫০ পাখি, গ্রেফতার ২
ফাইল ছবি

শহরে ফের পাখি পাচারের অভিযোগ। কলকাতা থেকে উদ্ধার হল আড়াইশোটি পাখি। সেগুলি আনা হচ্ছিল রাঁচি থেকে। রবিবার বাবুঘাট বাস টার্মিনাল থেকে সেগুলি উদ্ধার করা হয়। এই ঘটনায় দুই জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশ ও বন দফতর সূত্রে খবর, ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে দুই ব্যক্তিকে। আন্তঃরাজ্য একটি চক্র কাজ করছে পাখি পাচারের কাজে। এদিন রাঁচি থেকে কলকাতায় আনা হয়েছিল পাখিগুলোকে। এরপর সেগুলো বাইরে পাচার করে দেওয়া হওয়ার ছক ছিল।

ওয়াইল্ডলাইফ ক্রাইম কন্ট্রোল সেল সূত্রে খবর, রাঁচি থেকে কলকাতায় কিছু পাখিকে পাচার করার ছক তৈরি করা হয়। সেইমতো শনিবার রাত থেকে কলকাতার বিভিন্ন প্রান্তে নজরদারি চালাতে থাকেন ওয়াইল্ডলাইফ ক্রাইম কন্ট্রোল সেলের আধিকারিকরা। এরপর রবিবার সকালে বাবুঘাটের বাস টার্মিনালে ঝাড়খণ্ডের নম্বর প্লেটের একটি বাস দেখে তাদের সন্দেহ হয়, বাসে তল্লাশি চালাতে গিয়ে উদ্ধার করা হয় পাখিগুলি।

ভিন রাজ্য থেকে বাবুঘাটে রোজ অজস্র বাস আসে। তাই বন দফতরকে বাড়তি সতর্ক থাকতে হয়েছিল। অভিযান চালিয়ে একটি বেসরকারি বাস থেকে সেগুলিকে উদ্ধার করা হয়। ধৃত দুই ব্যক্তির নাম নারায়ন সিং এবং তৌফিক আলম। নারায়ন ওই বাসের চালক এবং তৌফিক খালাসী। উদ্ধার হওয়া পাখিগুলিকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বিধাননগরে। সেখানে রয়েছে বন্যপ্রাণ অপরাধ দমন শাখার অফিস। আপাতত তাদের সেখানে রাখা হয়েছে। বাসের ডিকিতে একাধিক খাঁচায় ভরে সেগুলি আনা হচ্ছিল। ঠাসাঠাসি করে সেগুলিকে রাখা হয়েছিল।

জানা গিয়েছে, ওই পাখিগুলি আনুমানিক বাজারদর তিন লক্ষ টাকা। ওই দুই ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। আরও তথ্য জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। তারা কোথা থেকে পাখিগুলি এনেছিল, সে ব্যাপারে জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। গাড়িটি ঝাড়খন্ডের। এই চক্রের সঙ্গে আর কে কে জড়িত তা-ও দেখছে তদন্তকারীরা। রাঁচিতে তাদের পাখিগুলি কে দিল সে ব্যাপারেও জানার চেষ্টা করা হচ্ছে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.